Breaking News
Home / INSPIRATION / কো’ভি’ড পজিটিভ শশুর’কে কাঁধে চাপিয়ে হসপিটালে ছুটলেন বৌমা

কো’ভি’ড পজিটিভ শশুর’কে কাঁধে চাপিয়ে হসপিটালে ছুটলেন বৌমা

কিছুদিন আগে এক মহিলার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল। সে তার শশুরকে পিঠে করে নিয়ে যাচ্ছিলেন। মহিলাটির শশুর কোভিড পজিটিভ ছিল যার কারণে কেউ তাকে অটোতে তোলার জন্য সাহায্য করেনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ছবিটি পোস্ট হওয়ার সাথে সাথে ছবিটি ভাইরাল হয়ে যায় এবং সবাই এই মহিলার তীব্র প্রশংসা করেন।

তবে এখন ভাইরাল হওয়া ছবিটিতে তার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন 24 বছর বয়সী মহিলা নীহারিকা দাস। নীহারিকা দাস বলেছেন যে তিনি আশাবাদী যে অন্য কেউ যেন এমন পরিস্থিতিতে না পড়তে হয়। এই ঘটনাটি ঘটেছে 2 জুন। আসামের নাগার রাহায় অবস্থিত ভাটিগায়ের বাসিন্দা নীহারিকার থুলেশ্বর দাস করোনা আক্রান্ত হয়।

এরপরে নীহারিকা নিজে একটি অটোরিকশা করে তাকে নিকটস্থ কমিউনিটি স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যায়। এই স্বাস্থ্য কেন্দ্র টি সেই জায়গা থেকে দুই কিলোমিটার দূরে। এক্ষেত্রে নীহারিকা বলেছিলেন তার স্বামী শিলিগুড়িতে কাজ করে এই কারণে তার স্বামী বাড়িতে ছিল না। তার বাড়ির রাস্তায় অটো যায় না যে কারণে সে বাড়ির দোরগোড়া থেকে অটো নিতে পারেননি।

অপরদিকে তার শশুর এতটাই দুর্বল ছিলেন যে তিনি দাঁড়াতেও পারছিলেন না। সেই সময় কেউ তাকে এবং তার শশুরকে সাহায্য করেনি। তাই বাধ্য হয়ে সে তার শশুরকে নিজের পিঠে চাপিয়ে অটো স্ট্যান্ড অব্দি নিয়ে আসে। যখন বলা হলো যে সেই স্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকে 21 কিলোমিটার দূরে কোভিড পরীক্ষা করার পরে শ্বশুরকে শ্বশুর বাড়ি নিয়ে যেতে হবে তখন তিনি সঙ্গে সঙ্গে রাজি হয়ে গেলেন।

তিনি একইভাবে শশুরকে পিঠে করে তিন তলার সিঁড়ি বেয়ে ওঠেন। সেখানেও তিনি অনেকের কাছে সাহায্য চেয়ে ছিলেন কিন্তু কেউ তাকে সাহায্য করেনি। নীহারিকা জানিয়েছেন গ্রামীণ স্বাস্থ্য কাঠামোর উন্নতি করা দরকার। অ্যাম্বুলেন্স না পেয়ে তাকে তার শশুরকে একটি ছোট ভাড়া ভ্যানে করে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হয়েছে‌।

ভালো কথা এটাই যে তার পথে অক্সিজেনের দরকার পড়েনি যদি হতো তাহলে হয়তো তিনি রাস্তাতেই প্রাণ হারিয়ে ফেলতেন। নীহারিকা তার শশুরকে কোভিদ থেকে বাঁচাতে নিজেও কোভিড পজেটিভ হয়েছেন। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় একজন আদর্শ পুত্রবধূ হিসেবে চিহ্নিত হয়েছেন।

আসামের এই গল্পটি গ্রামের স্বাস্থ্যের অবস্থা উন্মোচিত করেছে। নীহারিকা বলেছিলেন যে, তিনি গ্রামে একটি অ্যাম্বুলেন্স খুঁজে পাননি। তাই বাধ্য হয়ে তাঁকে একটি ছোট ভ্যানে করে শহরে আসতে হয়েছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় তার শশুরকে বাঁচানো যায়নি সোমবারে তিনি মারা যান।

Check Also

চা’করি ছেড়ে আম চাষ করলেন, 22 ধরনের আম চাষ করে বছরে 50 লাখ টাকা আয় করলেন ইনি, কিভাবে জানুন

আপনি যতই পরা শোনা করুন না কেন আপনি ভালো জায়গায় একটি ভালো কাজ পেয়েও হয়তো ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *