Breaking News
Home / HEALTH / রোজ সকালে ত্রিফলার জল, কী লাভ পাবেন?

রোজ সকালে ত্রিফলার জল, কী লাভ পাবেন?

সুস্থ থাকতে আমরা কী না কী করে থাকি। শরীর চর্চার সঙ্গে খাবারেও ভালো উপাদানগুলি রাখলে তবেই সব একসাথে শরীরকে ভালো ফল দেবে। তাই কেউ পান করেন লেবু জল, কেউ পান করেন অ্যালোভেরা আবার কেউ কেউ পান করেন ত্রিফলা ভেজানো জল।

এই সবগুলিই এক ধরণের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে আমাদের শরীরে। তাই সকাল সকাল উঠেই অনেকে ত্রিফলার জল পান করে ফেলেন। আয়ুর্বেদ শাস্ত্রেও এই জলের গুণ বর্ণনা করা আছে। ত্রিফলা শব্দটি সংস্কৃত। তিনটি ফল মিলে রয়েছে এই ত্রিফলার মধ্যে। আমলকী, হরিতকি ও বিভিতকা রয়েছে। প্রতিটি ফল আলাদা আলাদা ভাবে আমাদের শরীরের জন্যে জরুরী। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো ছাড়াও রয়েছে এর নানা গুণ।

১. আমরা যারা অতিরিক্ত ওজনের সমস্যায় ভুগছি তারা ভালো ফল পাব এই জল পান করলে। অতিরিক্ত মেদ থাকলে ক্ষতি করে সেটা আমাদের শরীরে। তাই সেই অতিরিক্ত মেদ কমাতে ভালো ভূমিকা নেয় এই ত্রিফলার জল। মেটাবোলিজম যার স্বাভাবিক রাখে। শরীর থেকে যাবতীয় দূষিত পদার্থ বের করে দেয় ত্রিফলার জল।

২. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এটি। বিভিন্ন ইনফেকশনের সঙ্গে লড়ার ক্ষমতা রয়েছে এই জলের মধ্যে। এছাড়াও এসিডিটির সঙ্গেও মোকাবিলা করতে পারে।

৩. চোখের কোনো সমস্যা থাকলে সেটা দূর করে। আবার দৃষ্টিশক্তি প্রখর করতেও ভালো ভূমিকা নেয়। এক গ্লাস গরম জলে ১-২ চামচ ত্রিফলা গুঁড়ো মিশিয়ে সারা রাত রেখে দিন। পরদিন সকালে উঠে সেই জলটা ছেঁকে নিয়ে ভালো করে চোখ পরিষ্কার করুন।

৪. দাঁতের হলদে ছাপ, দাঁতের মজবুতি, মাড়ি থেকে রক্ত পড়া, মুখের দুর্গন্ধ সব সমস্যার থেকে মুক্তি পাবেন এই জল পান করলেই।

৫. ত্রিফলায় থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট একদিকে যেমন এল খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে তেমন আবার হার্টে যাতে কোনওভাবেই প্রদাহ সৃষ্টি না হয়, সেদিকেও খেয়াল রাখে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই কোনও ধরনের হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা হ্রাস পায়।

Check Also

পাই’লস সম’স্যার চির’স্থা’য়ী সমা’ধান লা’উ শা’ক!

পাইলস স’মস্যার চির’স্থা’য়ী – শীতের একটি সু’স্বাদু সব’জি হচ্ছে লা’উ শাক। এটি একটি ফ’লিক এসিড ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *