Breaking News
Home / HEALTH / দাঁত মাজার নিয়ম না মানলে তাড়াতাড়ি ‘ফোকলা’ হবার সম্ভাবনা!

দাঁত মাজার নিয়ম না মানলে তাড়াতাড়ি ‘ফোকলা’ হবার সম্ভাবনা!

সচেতনতার অভাবে অনেকেই নিজেদের দাঁতের স্বাস্থ্যের যত্ন নেন না। এদিকে চলতি বছরের এই দিনটির থিম ঘোষণা হয়েছে বি প্রাউড অফ ইয়োর মাউথ- যা ঝকঝকে, সুন্দর দাঁত ছাড়া সম্ভব নয়। তার জন্য আবার প্রয়োজন ঠিক করে দাঁত মাজা। কিন্তু আমরা অনেকেই দাঁত মাজার ক্ষেত্রে ৬টি মারাত্মক ভুল করে থাকি। সেগুলোকে এড়িয়ে কী ভাবে নিজের ওরাল হেল্থ বজায় রাখা যায়, দেখে নেওয়া যাক এক এক করে!

১. ভুল টুথব্রাশ ব্যবহার করা-মানে টুথব্রাশের ব্রিসলের আয়তন নিয়ে সচেতন না হওয়া! কারও মুখের ভিতরটা ছোট হয়, কারও আবার বড়। টুথব্রাশের মাপ সেই মতো নির্ধারণ করা উচিত। না হলে কখনই দাঁত মাজার কাজটা সুষ্ঠু ভাবে সম্পাদিত হবে না।

২. পুরনো টুথব্রাশ ব্যবহার করা-আমরা অনেকেই মাসের পর মাস একটাই টুথব্রাশ ব্যবহার করে যাই! মনে করি যে ব্রিসলগুলো ঠিক থাকলে কোনও সমস্যা হয় না। কিন্তু এটি ভুল ধারণা, টুথব্রাশ যত পুরনো হতে থাকে, তত তার দাঁত পরিষ্কার করার ক্ষমতা চলে যায়। তাই প্রতি তিন বা চার মাস অন্তর টুথব্রাশ বদলানো দরকার।

৩. দাঁত মাজার সময়-ঠিক কতটা সময় নিয়ে দাঁত মাজা উচিত? আমেরিকান ডেন্টাল অ্যাসোসিয়েশন জানাচ্ছে যে এক্ষেত্রে পাক্কা ২ মিনিট ধরে দাঁত ব্রাশ করতেই হবে- তাও দিনে দু’বার করে! এই সময়টা না দিলে দাঁত পরিষ্কার থাকবে না।

৪. সামনে-পিছনে একটানে দাঁত মাজা-আমরা অনেকেই দাঁত মাজার সময়ে সামনের সারিটায় এক টানে ব্রাশ ঘষি, তার পর আবার একই ভাবে পিছনের সারিটা ব্রাশ করে মুখ ধুয়ে ফেলি। কিন্তু তাতে দাঁত থেকে পুরো ময়লা ওঠে না। তাই ডেন্টিস্টদের মতে ছোট ছোট গোল স্ট্রোকে হাত ঘুরিয়ে দাঁত মাজা উচিত- সামনে এবং পিছনে দুই পাটিতেই!

৫. মাড়ির যত্ন না নেওয়া-মাড়িতে যদি ময়লা জমতে থাকে, তাহলে দাঁত ঝকঝকে থেকেও কোনও লাভ নেই, সে দাঁতে পোকা হবে বা তা ক্ষয়ে যাবে। তাই ৪৫ ডিগ্রি কোণ করে মাড়ির সারিতে ব্রাশ বুলিয়ে দাঁত মাজলে তা পরিষ্কার থাকবে, আমরাও সমস্যা থেকে রেহাই পাবো।

৬. খেয়ে উঠেই দাঁত মাজা-ডাক্তারেরা বলছেন যে আমরা যা খাই, তার অনেকগুলোই অ্যাসিডিক গোত্রের। ফলে খেয়ে উঠে সঙ্গে সঙ্গে দাঁত মাজলে ওরাল ক্যাভিটির মধ্যে একটা অ্যাসিডিক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। আবার, খাওয়ার পরেই দাঁত মাজলে জমে থাকা খাবারের টুকরো বেরোয় না, কেবল দাঁতের এনামেল এই অ্যাসিডিক প্রতিক্রিয়ায় ক্ষয়ে যায়। তাই খাওয়ার অন্তত মিনিট পনেরো পরে দাঁত মাজা উচিত।

Check Also

পাই’লস সম’স্যার চির’স্থা’য়ী সমা’ধান লা’উ শা’ক!

পাইলস স’মস্যার চির’স্থা’য়ী – শীতের একটি সু’স্বাদু সব’জি হচ্ছে লা’উ শাক। এটি একটি ফ’লিক এসিড ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *