Breaking News
Home / LIFESTYLE / অনলাইনে কেনাকাটা করেন?‌ এসব থেকে সাবধান!

অনলাইনে কেনাকাটা করেন?‌ এসব থেকে সাবধান!

আগে যদিও বা মাসে অন্তত একবার শপিং মলে যেতেন, এখন সেসব বন্ধ। বিশেষত যাঁদের বাড়িতে প্রবীণ বা শিশু বা অন্য রোগে আক্রান্ত রয়েছেন। কারণ সেই করোনা। উইন্ডো শপিংও এখন অতীত। অগত্যা বাড়ি বসে মোবাইল হাতে কেনাকাটাই এখন একমাত্র বিকল্প।
এমনিতে বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে অনলাইন শপিংয়ের। এই যেমন যাতায়াতে সময় বা টাকা খরচ হয় না। যখন খুশি ইচ্ছেমতো কেনাকাটা করা যায়। আবার পছন্দ না হলেই ফেরত। কেউ ঘ্যানঘ্যান করার নেই। জোর করে জিনিস চাপিয়ে দেওয়ার নেই। তাবলে অনলাইনে কেনাকাটার কোনও ঝক্কি নেই, তা কিন্তু নয়। এই সমস্যাগুলোয় প্রায়ই পড়তে হয় অনলাইন ক্রেতাদের।

• গুনমান:‌ ছবিতে দেখলেন দারুণ ভালো। যেই বাড়িতে জিনিসটি এল, দেখা গেল— নাহ্‌, পাতে দেওয়ার যোগ্য নয়। আবার ফেরত। এসব ঝঞ্ঝাট লেগেই থাকে।
• ডিজিটাল ট্রানজাকশন:‌ নগদ দেওয়া–নেওয়া থেকে এখন বেশিরভাগ ক্রেতাই দূরে থাকেন। এক্ষেত্রে ডিজিটাল ট্রানজাকশনই ভরসা। কিন্তু নেটওয়ার্ক বা অন্য কারণে প্রায়ই ব্যর্থ হয় টাকা লেনদেন। অনেক সময় অ্যাকাউন্ট থেকে কেটে যায় টাকা। সেই নিয়ে ফের আবেদনপত্র, ব্যাঙ্কে ফোন, সাইটের কাস্টমার কেয়ারে ফোন।

• ওয়েবসাইট–এর নীতি:‌ অনেক শপিং ওয়েবসাইটেই কেনাকাটা বা জিনিস এবং টাকা ফেরত দেওয়ার নীতি স্পষ্ট করে লেখা থাকে না। হয়তো ছোট করে পেজের তলায় কোথাও লেখা। চোখ এড়িয়ে গেলে পরে বিপদ!‌
• দাম নিয়ে লুকোচুরি:‌ জিনিসটার দাম দেখলেন সাধ্যের মধ্যে। কিনবেন মনস্থির করলেন। চূড়ান্ত পর্বে এসে টাকা মেটাতে যাবেন, দেখেন ওমা!‌ এ যে প্রায় দ্বিগুন দাম চাইছে। ডিসপ্লে পেজে বলা ছিল না। কিন্তু পরে দেখা গেল জিনিসের দামের সঙ্গে আরও অনেক কিছু খরচ, কর যোগ হয়েছে। এই সমস্যা রোজের।

• ডেলিভারির সমস্যা:‌ দরকার হয়তো আপনার শিগগিরই। সাইটে দেখাল চলে আসবে। কিন্তু সঠিক সময়ে এল না। আবার অনেক সময় প্যাকেট খুলে দেখা যায়, জিনিসটি ভেঙে গেছে বা নষ্ট হয়েছে। সেটা হয়তো ডেলিভারি বয়ের সামনে খুলে দেখেননি। তখন সেই অনলাইন ওয়েবসাইট জিনিস আর ফেরত নেবে না। সে আর এক ঝামেলা।

Check Also

রা’ন্না ছাড়াও মাইক্রোওভেন দিয়ে এই কাজ গুলো ক’রতে পারেন যা আগে কখনই করেন নি!

মাইক্রোওভেন এখন প্রায় প্রতিটি মধ্যবিত্ত পরিবারেই সামিল৷ খাবার গরম ক’রতে মাইক্রোওভেনের ব্যবহার আম’রা সবাই জানি৷ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *