Breaking News
Home / INSPIRATION / লকডাউনে বাড়িতেই গাড়ি বানালেন কৃষক, একবারে ছুটবে ৩০০ কিমি

লকডাউনে বাড়িতেই গাড়ি বানালেন কৃষক, একবারে ছুটবে ৩০০ কিমি

করোনা সংকটের জেরে হওয়া লকডাউনে বেশিরভাগ লোকেরাই বাড়িতে ছিল। বহু লোকের কাজের প্রচুর ক্ষতি হয়েছিল, তবে কিছু লোক এই সময়কে তাঁদের নিজেদের নানান আইডিয়া অনুযায়ী কাজ করতেও ব্যবহার করেছেন। ওড়িশার এক কৃষক এই সময় বাড়িতে বসে বসে এমন এক কাজ করে ফেলেছেন, যার জন্য আজ প্রতিটি ভারতীয় তাঁর জন্য গর্ববোধ করছেন।

ওড়িশার ময়ূরভঞ্জের বাসিন্দা সুশীল আগরওয়াল আসলে একজন কৃষক। তবে লকডাউনে বাড়িতে বসে বসে তিনি বাড়ির নানান ফেলে দেওয়া সাধারণ জিনিসপত্র দিয়েই তৈরি করে ফেলেছেন একটি বৈদ্যুতিক গাড়ি।

সুশীল জানিয়েছেন, এই গাড়ির ব্যাটারি সৌর শক্তি দিয়ে চার্জ করা হয়। তাঁর দাবি গাড়িটি একবার ফুল চার্জ দিলে এটি ৩০০ কিমি অবধি যেতে পারে। সকলেই জানেন, এই মুহূর্তে পেট্রোল-ডিজেলের মতো জ্বালানির দাম বেড়েছে মারাত্মক হারে। এমতাবস্থায় যদি এক চার্জে কোনও গাড়ি ৩০০ কিমি যেতে পারে, তাহলে এটা যে দুর্দান্ত আবিষ্কার, তা নিয়ে আর কোনও দ্বিমত থাকে না।

সুশীল আগরওয়াল নামের ওই কৃষক জানিয়েছেন, এই গাড়ির ব্যাটারি চার্জ হতে একটু সময় লাগে। মোটামুটি ৮ ঘন্টা সময় লাগে ব্যাটারি ফুল চার্জ হতে। নতুন গাড়ি কেনার পরে ব্যাটারি ১০ বছর অবধি সার্ভিস দেয়। পরে ব্যাটারি পালটে ফেলতে হবে।

সুশীল আগরওয়াল জানিয়েছেন, লকডাউনে বাড়ি বসে থাকার সময়ে তিনি এই ব্যাপারে কাজ শুরু করেন। তাঁকে এব্যাপারে সাহায্য করেছেন দুই মেকানিক ও আরও এক বন্ধু। নিজের বাড়িতেই তিনি মোটর বাইন্ডিং, ফিটিং ইত্যাদি কাজ করেন।

কিন্তু কেন হঠাৎ এমন কাজ করলেন তিনি? সুশীল বাবু জানাচ্ছেন, তিনি অনুমান করেছিলেন যে, লকডাউনের পর জ্বালানির দাম আকাশছোঁয়া হবে, তাই তিনি ইলেকট্রিক গাড়ি বানানোর কথা ভাবেন। এ কাজ শুরু করার আগে তিনি বেশ কিছু ইউটিউব ভিডিও দেখেন, একই সঙ্গে বেশ কিছু বইও পড়েন। এরপরেই কাজে হাত দেন তিনি। বর্তমানে সারা দেশের কাছেই ক্রমেই পরিচিত হয়ে উঠছেন সুশীল আগরওয়াল। কারণ তিনি এমন সময় এমন এক পরিবেশ বান্ধব গাড়ি তৈরি করলেন, যা আসলেই মানুষের দরকার।

Check Also

চা’করি ছেড়ে আম চাষ করলেন, 22 ধরনের আম চাষ করে বছরে 50 লাখ টাকা আয় করলেন ইনি, কিভাবে জানুন

আপনি যতই পরা শোনা করুন না কেন আপনি ভালো জায়গায় একটি ভালো কাজ পেয়েও হয়তো ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *