Breaking News
Home / LIFESTYLE / বাড়ির অন্দরমহল সাজিয়ে তুলুন মনপছন্দ জিনিসে

বাড়ির অন্দরমহল সাজিয়ে তুলুন মনপছন্দ জিনিসে

পছন্দের বাড়ি মনের মতো করে সাজাতে কে- না পছন্দ করে? এক কামরার ফ্লাট হোক বা নিজের বাড়ি। মন পসন্দ ঘর সাজাতে সকলেই পছন্দ করেন। সময়ের অভাবে অনেক সময় সবটা না হয়ে উঠলেও একঘেয়েমী জীবনে মানসিক অবসাদ ভুলিয়ে শান্তি দেয় নিজের ঘরই।

তবে রোজ একঘেয়ে বেডরুম, ডাইনিংরুম অথবা কিচেন রুম দেখে কী আপনি ক্লান্ত? আর সত্যিই যদি ক্লান্ত হয়ে থাকেন তাহলে এই একঘেয়েমি ভাব কাটাতে নিজের ঘরবাড়িকে আধুনিক সরঞ্জাম দিয়ে সুন্দর করে সাজিয়ে তুলুন। দেখবেন আপনার বাড়ি নজর কাড়বে সবার।

বাড়ি ছোটো হোক বা বড় দিন শেষে নিজের ঘরে শুয়ে বসে যে শান্তি পাওয়া যায় তা পৃথিবীর অন্য কোথাও গেলেও পাওয়া যাবে না। আর এই নিজের একটুকরো বাড়িকে কী ভাবে আরও সুন্দর করে সাজিয়ে তুলবো তা নিয়ে আমরা অনেক ভাবনা চিন্তা করে থাকি। তবে সময় হোক বা পয়সা সব সময় সবটা আর করে ওঠা যায় না।

তবে ছোটো ছোটো জিনিস দিয়েই নিজের ঘরকে আরও সুন্দর করে সাজিয়ে তুলন আজই। নিজের ঘরকে অন্যের কাছে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে চাইলে বা একঘেয়েমি ভাব কাটাতে চাইলে আজই বদলে ফেলুন বাড়ির ডেকরেশন

১. ছোটো ঘরকে বড় বা বড় ঘরকে ছোটো দেখাতে ঘরের সঙ্গে মানানসই রঙ বাছুন।

২. এছাড়াও ঘরকে বড় দেখাতে চাইলে দেওয়াল জোড়া আয়না লাগাতে পারেন অথবা অনলাইন শপিং সাইটে বিভিন্ন ধরনের ড্রেসিং টেবিল বিক্রি হচ্ছে এখন। সেগুলিও দেখতে পারেন।

৩. হালকা ছাপা বা হালকা রঙের পরিবর্তে বিছানার চাদর ব্যবহার করুন গাঢ় রঙের।

৪. একঘেয়েমি দেওয়াল রোজ দেখতে ভালো না লাগলে এখন অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের সুন্দর সুন্দর পকেট ফ্রেন্ডলি বাজেটে ওয়াল স্টিকার পাওয়া যায়। সেগুলিও কিনে ঘরে লাগাতে পারেন৷

৫. বাড়িতে সোফা থাকলে সেখানে কুশন ব্যবহার করুন। এখন রঙবেরঙের কুশন গুলি বাজারে ব্যাপক জনপ্রিয়।

৬. এছাড়াও ফ্যামিলি ফটোফ্রেম বা সুন্দর কোনও ছবিও দেওয়ালে টানাতে পারেন। যাতে ঘরে ঢুকেই সবার নজর দেওয়ালের দিকে পড়ে।

৭. ছোটো ছোটো শো-পিস দিয়ে অথবা রঙিন ল্যাম্পশেড দিয়েও নিজের ঘরকে সাজিয়ে তুলতে পারেন।

Check Also

রা’ন্না ছাড়াও মাইক্রোওভেন দিয়ে এই কাজ গুলো ক’রতে পারেন যা আগে কখনই করেন নি!

মাইক্রোওভেন এখন প্রায় প্রতিটি মধ্যবিত্ত পরিবারেই সামিল৷ খাবার গরম ক’রতে মাইক্রোওভেনের ব্যবহার আম’রা সবাই জানি৷ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *