Breaking News
Home / LIFESTYLE / ঘ’রে বসেই নিজের হাতে বানিয়ে ফেলুন সুগন্ধী সাবান

ঘ’রে বসেই নিজের হাতে বানিয়ে ফেলুন সুগন্ধী সাবান

বাড়ি বসেই কাজ হোক বা অফিস গিয়ে, এ সময়ে ক্লান্তিটা যেন একটু বেশিই আসছে! যে কোনও কঠিন সময়ে তা-ই হয়। কাজের চিন্তার সঙ্গে যে যোগ হয়ে গিয়েছে অতিমারির ভয়। বেশি ক্লান্তি তো আসবেই। তবে তাই বলেই, কোনও মতে ঘুমিয়ে পড়ে দিনটা শেষ করার মানে হয় নাকি! বরং তার বদলে কাজের শেষে একটা চমৎকার স্নান ফুরফুরে করে দিতে পারে মনটা। আর সেই স্নানের সঙ্গী যদি থাকে সুগন্ধী কোনও সাবান, তবে তো কথাই নেই।

কী ভাবছেন? ক্লান্তি কাটানোর এই টোটকা নতুন নয়। তাই তো? তবে দিনের শেষে নিজেকে আহ্লাদ দেওয়ার সেই সময়টাকে আরও একটু বিশেষ করে নিতে পারেন। উপায়টা খুবই সহজ। পছন্দের সাবান এ বার বানিয়ে নিন নিজের হাতেই ।
প্রয়োজন শুধু দ’টি জিনিস। সাবানের বেস আর কিছু সুগন্ধীযুক্ত তেল। এর সঙ্গে রাখতে পারেন ঘরের কিছু জিনিস। যেমন কমলালেবুর খোসা, পাতিলেবুর খোসা, পছন্দের কোনও ফুলের পাঁপড়ি ব্যবহার করলে খুবই সুন্দর দেখায় সাবান।

যে কোনও দিন বেশি খাটাখাটনির পরে কানের পিছনে আর হাতের কোনও অংশে সামান্য সুগন্ধী তেল ছুঁইয়ে নিলে, অল্প সময়েই মনটা চনমনে হয়ে ওঠে। ল্যাভেন্ডার, লেবু, গোলাপের মত‌ো নানা গন্ধেই পাওয়া যায় এই তেল। সেই সুগন্ধী তেল, যা কি না এসেনশিয়াল অয়েল নামে বেশি পরিচিত, ব্যবহার করা যায় সাবান বানানোর ক্ষেত্রেও।

সাবানের বেস কিনতে পাওয়া যায় সর্বত্রই। প্রথম বার সাবান বানাতে চাইলে, তেমন কিছু কিনে নেওয়াই ভাল। সেই বেস ছোট ছোট টুকরোয় কেটে নিয়ে তার পরে গলিয়ে ফেলতে হবে। সাবান গলানোর সময়ে একটি চামচ দিয়ে টানা নেড়ে যেতে হবে বস্তুটি। না হলে তা লেগে যেতে পারে পাত্রের গায়ে। এমনকি, পাত্রটা পুড়েও যেতে পারে।

সাবধানে সাবানের বেস গলিয়ে ফেলতে পারলে সঙ্গে সঙ্গে কয়েক ফোঁটা সুগন্ধী তেল মিশিয়ে ফেলুন সেই থকথকে বস্তুটিতে। মিশ্রণটি ঠান্ডা হতে শুরু করার আগেই ঢেলে ফেলুন একটি সুন্দর পাত্রে। যেই আকারের সাবান চান, তেমন কোনও পাত্রে বাটার পেপার দিয়ে তার উপরে ঢেলে ফেলুন মিশ্রণটি। থকথকে মিশ্রণের উপর দিয়ে ছড়িয়ে দিন নিজের পছন্দ মতো গোলাপ কিংবা অন্য কোনও ফুলের পাঁপড়ি।

ফুল পছন্দ না হলে রাখুন কমলালেবু কিংবা পাতিলেবুর খোসা। কুচি কুচি করে সেই খোসা সাবানের গায়ে ছড়িয়ে দিলে, তা দেবে দর্শন ও ঘ্রাণের সুখ!
এর পরে ৫-৭ ঘণ্টা সময় দিন সাবানটা জমতে। তার পরে দেখুন নিজের হাতে বানানো সাবান কেমন লাগে ব্যবহার করতে।
এতে যেমন নিজের স্নানে আসবে একেবারেই একটি ব্যক্তিগত পছন্দের ছোঁয়া, আবার সাবান বানানোর সময়টুকুও কাটবে সুন্দর ভাবে!

Check Also

রাসায়নিক প্রসাধনী ছাড়া খুশকি তাড়ানোর ১০টি কার্যকর উপায়

খুশকি দূর করার জন্য এখন আর দামি প্রসাধনী সামগ্রী কিনে পকেট ফাকা করার প্রয়োজন নেই। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *