Breaking News
Home / NEWS / ক্যা’নসার আ’ক্রান্ত সঞ্জয় দত্তকে নিয়ে খারাপ খবর দিলো ডাক্তাররা, হাতে আর সময় নেই!

ক্যা’নসার আ’ক্রান্ত সঞ্জয় দত্তকে নিয়ে খারাপ খবর দিলো ডাক্তাররা, হাতে আর সময় নেই!

বলিউড জগতে এক আলাদা প্রভাব ফেলেছিলেন যিনি তিনি আজ কোথাও যেন ধীরে ধীরে হারিয়ে যাচ্ছেন । তেমন ভাবে দেখা যাচ্ছে না আর বড় পর্দাতে তাকে । মুন্না ভাই এমবিবিএস, অগ্নিপথ, সহ আরো বহু ছবিতে তাবর তাবর অভিনেতাকে টেক্কা দিয়ে ব্যাপক সাড়া ফেলেছিলেন তিনি । আমি কার কথা বলছি সেটা এতক্ষনে নিশ্চই আপনারা সকলে বুঝে গেছেন । আজ্ঞে হ্যাঁ আমি এই মুহূর্তে সঞ্জু বাবা তথা সঞ্জয় দত্ত এর কথা বলছি ।

মুন্না ভাই এমবিবিএস ছবিতে ব্যাপক প্রসার ফেলেছিলেন তিনি নেট দুনিয়ার জনতার মধ্যে । জায়গা করে নেন লক্ষ দর্শকের মনে । তৈরি করেন বড় অনুগামী মহল । কিন্তু এই তাবর অভিনেতা এখন জব্দ ক্যানসার এর কাছে । ক্যানসার তার রোজকার জীবনের চিত্রটা পাল্টে দিয়েছি। তবে এখন ক্যামন আছেন তিনি? শারীরিক উন্নতি হচ্ছে না অবনতি? কিছু কি জানেন এ ব্যাপারে এ ? না জানলে জানাবো আপনাদের বিস্তারিত ।

বেশ কিছুদিন আগে “সঞ্জু” বলে একটি ছবি মুক্তি পায় যেখানে সঞ্জয় দত্ত এর জীবন কাহিনী বর্ণনা করা আছে বিস্তারিত । তবে এই সঞ্জু বাবা এখন কাবু । জোর কদমে চলছে চিকিৎসা। জানা গেছে ফোর স্টেজে আছে তার ক্যানসার । কিন্তু এখনো হাল ছাড়েননি তিনি ।

তার বিস্বাস যে তিনি ক্যানসার কে হারিয়ে আবার ফিরবেন মূল স্রোতে । তবে যেটি উল্লেখ্য বিষয় সেটি হলো যে তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে রোটানো একটা ঘটনা , যা তার পরিবারের উপর এনেছে বড় সড়ো চিন্তা । শোনা যায়, ”সঞ্জয় দত্তের হাতে নাকি আর কয়েকটা মাস বাকি রয়েছে।” যা শুনে কার্যত ক্ষেপে যায় দত্ত পরিবার।

পিটিআইয়ের এক সাক্ষাতকারে সঞ্জয় দত্তের পরিবার স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, অভিনেতাকে নিয়ে যে খবর ছড়িয়েছে ”কয়েক মাস সময় রয়েছে” বলে, তা পুরোপুরি মিথ্যে।এর পাশাপাশি জানানো হয় যে মুম্বাই এ তার চিকিৎসা চলছে। তবে যেহেতু হাতে অনেক গুলো ছবি আছে তাই সেগুলো শেষ করে তবেই পারি দেবেন তিনি বিদেশে চিকিৎসার জন্য । সম্প্রতি মুক্তি পাবে তার অভিনীত ছবি “KGF 2”

Check Also

সরকারি হাসপাতালে Covaxin-এর দাম ৬০০টাকা, বেসরকারিতে ১২০০

সেরামের পর এবার ভারত বায়োটেক Bharat Biotech কোভ্যাক্সিনের Covaxin দাম ঘোষণা করল। রাজ্য সরকারগুলি কোভ্যাক্সিনের ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *