Breaking News
Home / VIRAL / ডুবন্ত দুই মহিলাকে বাঁচাতে সাঁতার কেটে হাজির রাষ্ট্রপতি, প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটিজেনরা

ডুবন্ত দুই মহিলাকে বাঁচাতে সাঁতার কেটে হাজির রাষ্ট্রপতি, প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটিজেনরা

বিপদের মুখে পড়ে থাকা কাউকে বাঁচাতে হাজির হবেন স্বয়ং রাষ্ট্রপতি! এমনটা ভাবা দুষ্কর হলেও সম্প্রতি এমন একটি ঘটনায় নজর কেড়েছে বিশ্বকে। যে ঘটনায় দেখা গিয়েছে ডুবন্ত দুই মহিলাকে বাঁচাতে স্বয়ং সমুদ্রে ঝাঁপ দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি। আর এই ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে পড়ে। ভাইরাল হওয়ার পাশাপাশি রাষ্ট্রপতির এমন পদক্ষেপের জন্য বিশ্বের প্রতিটি কোণার মানুষ তার প্রশংসায় পঞ্চমুখ।

এমন ঘটনা ঘটিয়ে নজির সৃষ্টি করা রাষ্ট্রপতি হলেন পর্তুগালের রাষ্ট্রপতি মার্সেলো রেবোলো (Marcelo Rebelo)। পর্তুগালের এক সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী জানা গিয়েছে, এমন অনন্য নজির সৃষ্টি করা ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার পর্তুগালের জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্র আলগার্ভ (Algarve) সমুদ্র সৈকতে।

পর্তুগালের রাষ্ট্রপতি মার্সেলো রেবোলো (Marcelo Rebelo) সমুদ্র সৈকতে দাঁড়িয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন। সে সময় দেখা যায় সমুদ্রের ছোট বোটে করে দুই মহিলা ঘোরার সময় হঠাৎ বোটটি উল্টে গেলে তারা সমুদ্রের জলে পড়ে যান। সে সময় তারা হাবুডুবু খেতে খেতে চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করেন। আর এই ঘটনা পর্তুগালের ৭১ বছর বয়সী রাস্ট্রপতির চোখে পড়তেই এক মুহুর্ত বিলম্ব না করে সমস্ত রকম প্রোটোকলকে উপেক্ষা করে সমুদ্রে ঝাঁপ দিয়ে দেন।

এরপর এই ঘটনা পর্তুগালের সংবাদ মাধ্যমগুলি প্রচার করে। আর সেই সংবাদের টুকরো অংশ সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে রাস্ট্রপতির ভূয়সী প্রশংসা করেন ফিলিপ মারলিয়ার নামে এক ব্যক্তি। আর ওই ব্যক্তির পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, রাষ্ট্রপতি সাঁতার কেটে ওই দুই মহিলার কাছে যখন যাচ্ছেন ঠিক সেই সময় অন্য একটি ব্যক্তি জেট স্কি নিয়ে ওই দুই মহিলার কাছে পৌঁছে যান। তারপর ওই দুই মহিলাকে ওই ব্যক্তি এবং রাষ্ট্রপতি দুজনে সমুদ্র পাড়ে নিয়ে আসেন উল্টে যাওয়া বোটটি করে।

Check Also

হটাৎ পুকুরের থেকে ড্রেনে আসলো বড় প্র-কা’ন্ড মাছ, দারুণ কায়দায় তী-র মে-রে মাছকে ধরলো বালক, ভাইরাল ভিডিও!

বর্তমানের এই সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে প্রতিভাকে সবার সামনে তুলে ধরা হয় এমনটা আমরা প্রত্যেকে জানি ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *