Breaking News
Home / LIFESTYLE / মাথার সামনে টাক পড়ে যাচ্ছে? হাতেনাতে ফল পেতে এই পদ্ধতি অনুসরণ করুন

মাথার সামনে টাক পড়ে যাচ্ছে? হাতেনাতে ফল পেতে এই পদ্ধতি অনুসরণ করুন

নিজস্ব সৌন্দর্য বজায় রাখার ক্ষেত্রে পোশাক ও সাজসজ্জার মতোই চুলের গুরুত্ব কিন্তু কোনও অংশেই কম নয়। তবে বর্তমানে নিজেদের সৌন্দর্য বজায় রাখার ক্ষেত্রে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে অকালে চুল পড়ে যাওয়া। আর, এই আধুনিক যুগে দাঁড়িয়ে চুল পড়ে যাওয়ার বিষয়টিকে ভালো চোখে দেখে না টিনএজাররা। দেখা যাচ্ছে, ছেলে মেয়ে উভয়ের ক্ষেত্রেই বেশিরভাগ সময়ে সামনের দিক থেকে চুল পড়ছে, যার ফলে কপাল চওড়া হয়ে যাচ্ছে। এনিয়ে চিন্তিত অনেকেই।

এহেন অবস্থাকে দূর করতে এবং নতুন চুল গজাতে বাজার থেকে কেনা বহু প্রোডাক্ট আমরা ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু নতুন চুল গজানোতো দূর অস্ত, উল্টে চুল আরও বেশি পড়তে থাকে। চিকিৎসকদের মতে বংশগত কারণে, থাইরয়েডের সমস্যা, আয়রন বা ক্যালসিয়ামের অভাব, খাদ্যে পুষ্টিগুণের অভাব, বিভিন্ন ঔষধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ও হরমোনের ভারসাম্য ঠিক না থাকার জন্য চুল পড়ে যেতে পারে। তবে কারণ যাই হোক না কেন চুল পড়ে যাওয়া আটকানোর সমাধান আমাদের সকলের চাই।

তবে চলুন ঘরোয়া উপায়ের মাধ্যমে কীভাবে চুল পড়ে যাওয়ার সমস্যার সমাধান করবেন তা জেনে নেওয়া যাক। নারকেল তেল, মেথি ও কালোজিরার মিশ্রণ প্রথমেই মেথি এবং কালোজিরাকে কড়া রোদে শুকিয়ে নিন তারপর দুটো একসঙ্গে গুঁড়ো করে নিন। এরপর নারিকেল তেলের সঙ্গে গুঁড়ো করা মেথি ও কালোজিরে মিশিয়ে মিশ্রণটিকে কয়েক মিনিট ফুটিয়ে নিন। মিশ্রণটি ঠান্ডা হয়ে যাওয়ার পর একটি কাচের বোতলে অনায়াসেই ১৫-২০ দিন রেখে দিতে পারেন।

এই মিশ্রণটি চুলে লাগানোর আগে এর সাথে ভিটামিন ই ক্যাপসুল মিশ্রিত করে মাথার ফাঁকা স্থানে লাগিয়ে ভাল করে ম্যাসাজ করুন। সপ্তাহে দুই থেকে তিনবার লাগাবেন। কয়েক মাসের মধ্যেই হাতেনাতে ফল পাবেন। এই সমস্ত উপকরণ চুল পড়া রোধ করতে দারুণ কার্যকরী। চুল পাতলা হয়ে যাচ্ছে? এই ঘরোয়া প্রতিকারের মাধ্যমেই হবে সমস্যার সমাধান নিম পাতার রস বিশেষজ্ঞদের মতে নিমপাতা এমন একটি প্রাকৃতিক জীবাণুনাশক যা নতুন চুল গজাতে এবং চুল পড়া বন্ধ করতে সাহায্য করে।

পাশাপাশি চুলের গোড়ার যাবতীয় সমস্যা দূর করতে এবং খুশকি দূর করতেও সাহায্য করে। নিমপাতা এনে তাকে ভালো করে ধুয়ে পেস্ট করে নিন। এরপর সেই পেস্ট থেকে রস বার করে মাথার পুরো অংশে, চুলের গোড়াতে লাগিয়ে ম্যাসাজ করুন। রস বার না করতে চাইলে বেটে নিয়েও পেস্টটি সরাসরি লাগাতে পারেন। কমপক্ষে ৩০ মিনিট লাগিয়ে রেখে দিন, তারপর হালকা গরম জল ও শ্যাম্পু দিয়ে মাথা ধুয়ে নিন। এভাবে সপ্তাহে অন্তত তিন থেকে চারদিন করুন।

মাসখানেকের মধ্যেই দূর হয়ে যাবে আপনার চুল পড়ার সমস্যা। নিমপাতা পেস্ট করতে না পারলে, ভালো করে ধুয়ে জলে ফুটিয়ে নিন। এই জল ঠান্ডা করে তা দিয়ে মাথা ধুয়ে ফেলুন। এভাবেও উপকার পেতে পারেন আপনি। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, এই উপকরণটি লাগানোর পাশাপাশি দীর্ঘস্থায়ীভাবে চুল পড়া রোধ করতে অগোছালো জীবনযাত্রার পরিবর্তন করতে হবে। পর্যাপ্ত ঘুম, পরিমাণমতো জলপান ও সময়মতো খেতে হবে, তবেই চুল পড়া রোধ করতে পারবেন।

Check Also

হাঁড়িপাতিলের যে কোনো জেদি দাগ দূর করুন নি’মিষেই!

প্রতিদিন রান্নার কাজে হাঁড়িপাতিল অবশ্যই ব্যবহার ক’রতে হয়। এক্ষেত্রে নানা আকৃতির হাঁড়িপাতিল, কড়াই, ফ্রাইপ্যান কিংবা ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *