Breaking News
Home / VIRAL / করো’না: মা যতক্ষণ বেঁচেছিলেন, হাসপাতা’লের জানলায় বসে রইল ছে’লে

করো’না: মা যতক্ষণ বেঁচেছিলেন, হাসপাতা’লের জানলায় বসে রইল ছে’লে

সন্তানের জন্য মায়ের আত্মত্যাগের কথা কে না জানে? এ জগতে একমাত্র মা-ই সন্তানের জন্য নিজের জীবন বাজি রাখতে পারেন। তবে বড় হতে হতে অনেক সময় আম’রা ভুলে যেতে থাকি মায়ের নিঃস্বার্থ আত্মত্যাগ। কিন্তু বহু বছর আগে বায়েজিদ বোস্তামি ছিলেন যেন একটু অন্যরকম। তাঁর মাতৃভক্তি ছিল অসামান্য।

বর্তামান যুগে যেন এমন মাতৃভক্তির দৃষ্টান্ত পাওয়াই অনেকটা কঠিন কাজ। কিন্তু তবু, কোথাও যেন মা-সন্তানের স’ম্পর্ক আলাদা হয়ে যায় সব কিছু থেকে। ঠিক যেমন করো’নার এই দুঃসময়ে ঘটল। করো’না দুঃসময়ে মাতৃভক্তি দিয়ে সারা বিশ্বের নজর কেড়েছেন এক ফিলি’স্তিনি তরুণ।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ছবি ভাই’রাল হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, হাসপাতা’লে কয়েকতলা ওপরে কাচের দেওয়ালের পাশে ভেতরের দিকে তাকিয়ে বসে আছেন এক ব্যক্তি। বয়স বেশি নয়। কিন্তু কেন এমন হাসপাতা’লের জানলার পাশে বসে আছেন তিনি?‌ সেই বিষয়ের সন্ধান করতেই বেরিয়ে এসেছে অ’বাক করা তথ্য।

ওই তরুণের নাম জিহাদ আল সুয়াইতি। বয়স ৩০। তাঁর মা করো’না আ’ক্রান্ত হয়ে এই হাসপাতা’লেই ভর্তি রয়েছেন। সরকারি হাসপাতা’লের ইন্টেনসিভ কেয়ার ইউনিটে ভর্তি মা–কে দেখতে যাওয়ার অনুমতি স্বাভাবিকভাবেই পাননি ছে’লে। তাই তিনি অ’পেক্ষা করেছেন জানলার পাশে বসে।

শেষ সময়ে মায়ের কাছ থেকে সরে যেতে চাননি। জানলা দিয়েই তিনি দেখেছেন, মা মৃ’ত্যুর কোলে ঢলে পড়ছেন। যতদিন মা হাসপাতা’লে ভর্তি ছিলেন, ততদিন রোজ রাতে ওই জানলার ধারে বসে থাকতেন এই তরুণ। মোহাম্মাদ সাফা নামে একজন এই ছবিটি শেয়ার করে লিখেছেন এই বিষয়টি।

করো’না আ’ক্রান্ত মায়ের আগে থেকেই ছিল লিউকোমিয়া। পাঁচদিন তাঁকে ভর্তি থাকতে হয়েছিল হাসপাতা’লে। সেই তরুণ সন্তান বলেন, আমা’র অসহায় লাগতো। তাই হাসপাতা’লের জানলার ধারে বসে থাকতাম। মাকে দেখতে।

Check Also

কাজের টাকা না দেয়ায় মালিকের পৌনে ৬ কোটির বাড়ি গুঁড়িয়ে দিলেন মিস্ত্রি

বাড়ি তৈরির কাজ করিয়েও পুরো টাকা না দেওয়ায় শাস্তি পেলেন জে কুর্জি নামের এক বাড়িওয়ালা। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *