Breaking News
Home / SPORTS / বোলার হয়েও টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করে নজির গড়েছেন বিশ্বের ৪ ক্রিকেটার

বোলার হয়েও টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করে নজির গড়েছেন বিশ্বের ৪ ক্রিকেটার

টেস্ট ক্রিকেট মানেই ছিল একসময় সবুজ মাঠের মধ্যে সাদা পোশাক পড়া ক্রিকেটারদের আভিজাত্যের সঙ্গে দক্ষতার প্রদর্শনী। দর্শকরা সেই সব পাঁচ দিনের দীর্ঘ টেস্ট দেখতে আসতেন ছুটির মেজাজে। ক্রিকেটাররাও খেলার মাধ্যমে পরিচয় দিতেন শারীরিক, মানসিক ও টেকনিকের সর্বোচ্চ দক্ষতার।

প্রথম টেস্ট খেলা শুরু হয় ১৮৭৭ সালের মার্চের ১৫ থেকে ১৯ তারিখে। প্রতিপক্ষ ছিল ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। ওই খেলায় অস্ট্রেলিয়া ৪৫ রানে জয়ী হয়েছিল। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে টেস্ট খেলার বহু নিয়মনীতি পাল্টেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল। তবু ক্রিকেট খেলায় টেস্ট ক্রিকেটকে এখনও দক্ষতার সর্বোচ্চ মানদন্ড হিসাবে ধরা হয়। যদিও তাতে প্রভাব পড়েছে ওয়ান ডে ও টি-টোয়েন্টি খেলার ধরণ। তাই টেস্ট ক্রিকেটে মাঝে মাঝে ঘটেছে আশ্চর্য সব ঘটনা। যেমন বিশ্বের ৪ জন ক্রিকেটার বোলার হয়েও টেস্টে নজির গড়েছেন ডাবল সেঞ্চুরি করে। যা টেষ্ট খেলার দক্ষতার বিচার অবিশ্বাস্য ঘটনা।

১) জেমস হোল্ডার : এই চারজনের মধ্যে প্রথমেই যার নাম আসে তিনি হলেন জেমস হোল্ডার, ওয়েস্ট ইন্ডিজের খেলোয়াড়। তিনি একজন অলরাউন্ডার হিসাবে পরিচিত। ব্রায়ান লারা, ভি.ভি রিচার্ডসের মতো খেলোয়াড়দের যোগ্য উত্তরসূরী। ২০১৯ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ২২৯ বল খেলে ২০২ রান করেছিলেন। তার মধ্যে ছিল ২৩ টি চার ও ৮ টি ছক্কা। আর এই ম্যাচে তিনি মানেননি টেস্ট ক্রিকেটের অনেক ব্যাকরণের নিয়মকানুন।

২) জেসন গিলেস্পি : জেসন গিলেস্পি অস্ট্রেলিয়া দলের একজন গুরুত্বপূর্ণ বোলার ছিলেন। ডানহাতি পেস বোলার হিসাবে তিনি দলে অন্তর্ভুক্ত হয়েছিলেন।বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ২০০৬ সালে একটি টেস্ট ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরি করেছিলেন। ৪২৫ বল খেলে তিনি ২০১ রানে অপরাজিত থাকেন। ২০১ রান করতে তিনি ২৬ টি বাউন্ডরি ও দুটো ছক্কা মেরেছিলেন।

৩) ওয়াসিম আক্রাম : এক সময়ে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের সেরা ক্রিকেটার ছিলেন। ক্যাপ্টেন ইমরান খানের তিনি ছিলেন প্রধান অস্ত্র। প্রধানত বিশ্বের সেরা বোলার হিসাবে তিনি পরিচিত। টেস্টে তিনি ৪১৪ টি উইকেট নিয়েছেন। তাকে বলা হয় সুলতান অব দি সুইং। কিন্তু তিনিই ১৯৯৬ সালে জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে ২৫৭ রানের একটি অবিস্মরণীয় ইনিংস খেলেন। ১২ টি ছয় সহ ২২ টি ৪ মারেন। টেস্ট ক্রিকেটের মতো দক্ষতা নির্ভর খেলায় এমন ধরনের স্কোর করা একজন বোলারের পক্ষে অবিশ্বাস্য ঘটনা।

৪) বেন স্টোকস : ইংল্যান্ডের এই খেলোয়াড় বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বে অন্যতম অলরাউন্ডার হিসাবে পরিচিত। ডানহাতি এই প্রেসার ২০১৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ১৯৮ বলে ২৫৮ রান করেছিলেন। এই ইনিংস সাজানো ছিল ১১ টি ছক্কা ও ৩০ টি চার রান দিয়ে। এখনো পর্যন্ত টেস্টে ১০০ উইকেট নিয়েছেন, রান আছে ৪০০০। ইয়ান বথামের পরই আছে তাঁর স্থান।

টেস্ট ক্রিকেটে যারা ধ্রুপদী ব্যাটসম্যান হিসাবে পরিচিত তাদের একইভাবে টেস্ট খেলায় এমনভাবে উইকেট নেওয়ার কোন নজির নেই। সেইজন্যই টেস্ট ক্রিকেটে এইসব বোলারদের এমন অবিশ্বাস্য ইনিংস বারবার আলোচনায় উঠে আসে।

Check Also

সে’রা অধিনায়’ক কে ধোনি নাকি সৌ’রভ? প্রকাশ্যে এলো সমীক্ষার ফলা’ফল

ভারতীয় ক্রিকেটের দুই কিংবদন্তি অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি এবং মহেন্দ্র সিং ধোনি। খেলোয়াড় হিসেবে দুজনই অসামান্য। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *