Breaking News
Home / NEWS / শোকের ছায়া নেমে এল সবংয়ের দাঁরার গ্রামে, ফের শ’হিদ হলেন বাংলার এক জওয়ান

শোকের ছায়া নেমে এল সবংয়ের দাঁরার গ্রামে, ফের শ’হিদ হলেন বাংলার এক জওয়ান

বাড়ির লোকের সঙ্গে দুপুর ১২টা তেই কথা হয়েছিল শহিদ জওয়ানের | তার ঠিক দেড় ঘন্টা পরেই বাড়িতে এসে পৌঁছলো তার শ’হিদ হয়ে যাওয়ার সংবাদ | দেশকে র’ক্ষা করতে গিয়ে ফের শ’হিদ হলেন সবংয়ের দাঁরার গ্রামর এক যুবক | শুক্রবার অনন্তনাগে ভারতীয় জওয়ানদের উপর হা’মলা চালায় জ’ঙ্গিরা |

আর সেখানেই স’ন্ত্রাসবাদীদের গুলি ঝাঁঝরা করে দেয় জওয়ান শ্যামল কুমার দে-কে | ছেলের মৃ’ত্যুর খবর বাড়িতে পৌঁছনো মাত্র গোটা গ্রামে জুড়ে শো’কের ছায়া নেমে এসেছে | শহিদ জওয়ান ৯০ সিআরপিএফ পদে কর্মরত ছিলেন |

জওয়ানের পরিবারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, তিনি শেষ বারের মত ডিসেম্বরে বাড়ি এসেছিলেন | তারপর থেকে আর বাড়ি আসতে পারেননি তিনি | ছেলের শো’কে পাথর হয়ে গিয়েছেন বাবা বাদল দে | মা শিবানী দেবী মাঝে মাঝেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলছেন |

জওয়ান শ্যামল ছিলেন তাদের একমাত্র ছেলে | তারা এখনও বিশ্বাস করতে পারছেন না যে তাদের ছেলে আর নেই | শ’হিদ জওয়ানের বাবা জানিয়েছেন, “আজই সকাল সাড়ে এগারোটায় ছেলের সঙ্গে কথা হয় | তখন বাড়ির জন্য জলের পাইপ কিনতে গিয়েছিলাম | ছেলেকে পাইপের ছবি হোয়াটসঅ্যাপে দেখানো হয় |

তারপর দেড়টার সময় আবার ফোন করি | তখন ছেলের ফোন বেজে যায় | তারপর দুপুর দেড় টা নাগাদ ফোন করে আমাদের জানানো হয় ছেলে আর নেই ও শ’হিদ হয়েছে |” তার ছেলে তখন ফোন ধরতে পারেননি কারণ ঐদিকে তখন চলছে গু’লির ল’ড়াই |

তার বাবা আরও জানান, শ্যামল পরিবারের একমাত্র রোজগেরে ছিলেন | ২০১৫ সালে তিনি সিআরপিএফে যোগদান করেন | এই কোটা বছরের মধ্যেই সব শেষ হয়ে গেল বলে জানান তার বাবা |

খবর পেয়ে নি’হত জওয়ানের বাড়িতে বিকালে যান রাজ্যসভার সাংসদ মানস ভুঁইয়া, বিধায়ক গীতা ভুঁইয়া, বিডিও অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়,সবং থানার ওসি-সহ অনেকে | মানস ভুঁইয়া শো’ক প্রকাশ করে বলেছেন, “বুকে পাথর চেপেও বলছি আমরা গ’র্বিত |” তবে বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকারকে দু’র্বল উল্লেখ করে তিনি বলেন,” আর কত বাবা মায়ের কোল খালি হবে?”

Check Also

চলতি মাসে টানা ছয় দিন বন্ধ থাকবে ব্যাঙ্ক, মাঝে একদিন খোলা, রইলো সম্পূর্ণ তালিকা

এই সপ্তাহে ব্যাঙ্কে যদি কোনো গুরুত্বপূর্ণ কাজ থাকে তাহলে এক্ষুনি আপনার এই খবর জেনে রাখা ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *