Breaking News
Home / VIRAL / ATM মেশিনে ঢুকে গেল বড়সড় সাপ, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও Viral

ATM মেশিনে ঢুকে গেল বড়সড় সাপ, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিও Viral

নিজেদের বাসস্থান ছেড়ে সাপকে আমরা অনেক সময় দেখেছি লোকালয়ের মধ্যে ঢুকে পড়তে। সাপ বারংবার উদ্ধার হয়েছে গৃহস্থের বাড়ি থেকে, ঝোপঝাড় থেকে, সে ছবি নতুন নয়। তবে এবার একটি আস্ত সাপ ঢুকে পড়লো প্রথমে এটিএম কাউন্টারে এবং পরে এটিএম মেশিনের ভিতর। যা দেখে হতবাক এলাকার বাসিন্দারা। আর সেই মূহূর্তের ক্যামেরাবন্দি করা ভিডিও মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ঘটনাটি ঘটেছে গাজিয়াবাদে। একটি আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের এটিএম কাউন্টারের এমন ঘটনা ঘটেছে। এটিএমে সাপটি ঢুকে পড়ার পর বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে দেন এক নিরাপত্তা কর্মী। সাপ ঢুকে পড়ার খবরে এটিএমের বাইরে ভিড় জমে যায়।

এটিএম কাউন্টারের মধ্যে থাকা এটিএম মেশিনের ডিসপ্লের কাছে থাকা ছোট্ট ফুটো দিয়ে মাথা গুলিয়ে আস্ত এই সাপটি ঢুকে পড়ে মেশিনের মধ্যে। আর এমন ঘটনা দেখতে ঘটনাস্থলে জড়ো হন এলাকার বেশকিছু বাসিন্দারা। তারাই সেই মুহূর্তের ভিডিও ক্যামেরাবন্দি করেন।

ঘটনাস্থল গাজিয়াবাদের গোবিন্দপুরের প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সাপটি কম করে ৫ থেকে ৬ ফুট লম্বা ছিল। কোনো কারণবশত সে ওই এটিএম কাউন্টারের ভিতরে ঢুকে যায়। তারপর এদিক ওদিক দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করে। ভয়ে কেউ কাছে যায়নি। কিন্তু বের হতে না পেরে ঢুকে পড়ে এটিএম মেশিনের ভিতর।


ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে সাপটি এটিএম বুথ বেয়ে উপরে উঠে দিকে ওঠে। এর পরই বুথটির ফাঁকা অংশে আশ্রয় নেয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও হোয়াটসঅ্যাপের মতো মেসেজিং প্ল্যাটফর্মে ছড়িয়ে পড়েছে ভিডিওটি।

যদিও সাপটি এটিএম কাউন্টারের ঢুকে থাকা অবস্থা ও এটিএম মেশিনের ভিতরে ঢুকে পড়া অবস্থায় ঘটনা ক্যামেরাবন্দি হয়। সেই ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ভাইরাল হওয়া ভিডিয়োটি একাধিক অ্যাকাউন্টে শেয়ার হয়েছে। সেখানে এক একটিতেই কয়েক হাজার করে ভিউ পেয়েছে ভিডিয়োটি। পরে সাপটিকে বন বিভাগের কর্মীরা এসে উদ্ধার করেন। জেলার বন আধিকারিক দীক্ষা ভান্ডারি জানিয়েছেন, সাপটি বিষধর নয়।

Check Also

কাজের টাকা না দেয়ায় মালিকের পৌনে ৬ কোটির বাড়ি গুঁড়িয়ে দিলেন মিস্ত্রি

বাড়ি তৈরির কাজ করিয়েও পুরো টাকা না দেওয়ায় শাস্তি পেলেন জে কুর্জি নামের এক বাড়িওয়ালা। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *