Breaking News
Home / NEWS / ভারত হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন না দিলে ‘কড়া ব্যবস্থা’ নিতে পারে আমেরিকা, বার্তা ট্রাম্পের

ভারত হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন না দিলে ‘কড়া ব্যবস্থা’ নিতে পারে আমেরিকা, বার্তা ট্রাম্পের

করোনাকে কাবু করার প্রতিষেধক বেরোয়নি এখনও। তবে কিছু কিছু ওষুধ প্রয়োগ করে আক্রান্তদের সুস্থ করে তোলার চেষ্টা করা হচ্ছে। তেমনই একটি ওষুধ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এই ওষুধ পাঠায় ভারত। তবে এ ব্যাপারে কিছু নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে ভারতের তরফে। এ প্রসঙ্গে ডোনাল্ড ট্রাম্প মঙ্গলবার আভাস দিলেন, ভারত যদি হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন না পাঠায় তবে কড়া ব্যবস্থা নিতে পারে আমেরিকা।

হোয়াইট হাউস থেকে বক্তব্য রাখতে গিয়ে ট্রাম্প বলেন, ভারতের সঙ্গে মার্কিন মুলুকের সম্পর্ক খুব ভালো। ভারতের ওষুধ না পাঠানোর মতো কোনও কারণ তিনি দেখতে পাচ্ছেন না বলে জানিয়েছেন।

মোদীর সঙ্গে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন-এর ব্যাপারে রবিবার ফোনে কথা হয় ট্রাম্পের। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘খুব ভালোব কথা হয়েছে।’ পাশাপাশি তিনি জানিয়েছেন, ভারত যদি তাঁদেরকে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন দেয় তবে তাতে অবাক হওয়ার কোনও ব্যাপার নেই। ভারত অন্য দেশের জন্য এটি বন্ধ করেছে। ট্রাম্প জানিয়েছেন, ফোনালাপে মোদী বলেছেন, দেশে এই ওষুধ পর্যাপ্ত মজুত আছে কি না, তা ভালো করে যাচাই করে কোনও চূড়ান্ত নেওয়া হবে।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের বক্তব্য, তিনি আশা করেন ভারত এই ওষুধ পাঠাবে, তবে ভারত যদি এই নিষেধাজ্ঞা না তোলে সেক্ষেত্রে ভারত ও আমেরিকার মধ্যেকার ভালো বাণিজ্য চুক্তির ইঙ্গিত টেনে ‘ব্যবস্থা’ নেওয়ার কথা বলেছেন ট্রাম্প।

উল্লেখ্য, গত ২৫ মার্চ নিঃশব্দে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনের রফতানিতে বিধিনিষেধ আরোপ করে কেন্দ্রীয় সরকার। করোনায় সংকটময় পরিস্থিতিতে এই ওষুধের যাতে আকাল না পড়ে, তার জন্যই তড়়িঘড়ি এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে এবারপ্রবল আন্তর্জাতিক চাপের মুখে ম্যালেরিয়া প্রতিষেধক ওষুধ হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন রফতানিতে ফের ছাড়পত্র দিতে পারে কেন্দ্রীয় সরকার। এই বিষয়ে মঙ্গলবার সরকারি তরফে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।

Check Also

১ দিনের শিশুকন্যাকে ফেলে গেল বাবা-মা, কান্না শুনে আগলে রাখল রাস্তার কুকুর

একবিংশ শতাব্দিতে দাঁড়িয়েও কন্যা সন্তানের প্রতি অনীহার ছবিটা যেন বদলাচ্ছে না। চতুর্থীর সন্ধে, দুর্গাপুজোর শেষ ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *