Breaking News
Home / NEWS / করোনার জেরঃ বাংলায় আইসোলেশনে ৬ জন, বাড়িতে নজরদারি ১৯৭৭ জনের উপরে

করোনার জেরঃ বাংলায় আইসোলেশনে ৬ জন, বাড়িতে নজরদারি ১৯৭৭ জনের উপরে

বিশ্বজুড়ে মহামারীর আকার নিয়েছে করোনা। ক্রমশ বেড়েই চলেছে মৃত ও আক্রান্তের সংখ্যা। বাংলাতেও প্রভাব বিস্তার করছে এই মারন ভাইরাস। আইসোলেশনে রয়েছেন ৬ জন।

লাইভ মিন্টের প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, হাসপাতালে এই মুহূর্তে ৬ জন আইসোলেশনে রয়েছেন। মোট ২,৫৬,৬৮২ জনকে করোনার জন্য স্ক্রিনিং-এর মাধ্যমে পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে। এদের মধ্যে ১৯৭৭ জনকে বাড়িতেই পর্যবেক্ষণে রাখা হচ্ছে। তবে এখনও পর্যন্ত করোনা ভাইরাসের পসিটিভ রিপোর্ট কারও আসেনি।

যে ৬ জনকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে তাঁদের মধ্যে ৩ জন ভারতীয়। তাঁরা এই মুহূর্তে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে রয়েছেন। শুক্রবার এক ইতালীয় কাপলকে নেগেটিভ রিপোর্ট আসার পরে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। কলকাতা ও বাগডোগরা বিমানবন্দরে এবার ৬৮,৭৬১ জনকে স্ক্রিনিং এর মাধ্যমে পরীক্ষা করে দেখা হয়েছে।

প্রসঙ্গত সোমবার থেকে সমস্ত স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার। কিন্তু পরীক্ষার শিডিউলে কোনও পরিবর্তন হচ্ছে না।

সাংবাদিক সম্মেলনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলছেন, সমস্ত সরকারি ও প্রাইভেট স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, মাদ্রাসা, শিশু শিক্ষা কেন্দ্র, মাধ্যমিক শিক্ষা কেন্দ্র ১৬ মার্চ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ থাকবে জনস্বার্থে।

উল্লেখ্য, এই মুহূর্তে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ১০০ ছুঁয়েছে। দেশে এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। তাঁরা কর্ণাটক ও দিল্লির বাসিন্দা। শুক্রবার পর্যন্ত মহারাষ্ট্রে মোট ১৯ জনের দেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পাওয়া গিয়েছে। ২৪ ঘণ্টা যেতে না যেতেই শনিবার রাত পর্যন্ত সেই সংখ্যাটা এক লাফে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩১। এছাড়া কেরালা থেকে মোট ২২ জনের করোনায় সংক্রামিত হওয়ার খবর মিলেছে।

মহারাষ্ট্র ছাড়াও রাজস্থান, তেলেঙ্গানা এবং কেরালা থেকে একজন করে নতুন করোনা আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে। প্রসঙ্গত, ভারতে মোট করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে বর্তমানে ১০ জন সম্পূর্ণ সুস্থ এবং দুই জনের মৃত্যু হয়েছে।

Check Also

শীতে’র মরসুমে হটাৎ বড় পতন সোনার দামে, রইলো কলকাতার বাজারে আজকের দাম!

আপনি কি আগামী দিনে সোনার গয়না বা সোনার জিনিস কিনতে যাচ্ছেন? তাহলে এই সময়টি হতে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *