Breaking News
Home / NEWS / অবরুদ্ধ উহান শহরে খাবারের জন্য হাহাকার

অবরুদ্ধ উহান শহরে খাবারের জন্য হাহাকার

চীনের উহান শহরের পাশের শহর গুও জিং। চলতি বছরের ২৩ জানুয়ারি থেকে অবরুদ্ধ হয়ে আছে শহরটি। টহল পুলিশেরর কারণে বাড়ি থেকে বের হতে গেলেও নানা ধরনের ঝামেলায় পড়তে হচ্ছে সেখানকার বাসিন্দাদের।

জানা গেছে, বর্তমানে সেখানে খাবারের তীব্র সঙ্কট দেখা দিয়েছে। সেখানকার ২৯ বছর বয়সী যুবক গো জিংহো বলেন, মুদির দোকান দিয়ে সংসার চালান। দোকানে শাক-সবজিও বিক্রি করেন। কিন্তু কয়েকদিন ধরে আর বিক্রি করছেন না।

কারণ, যে পরিমাণ সবজি এবং অন্যান্য শুকনো খাবার তার দোকানে রয়েছে, আরেক মাস কোয়ারেনটাইন চলতে থাকলে নিজেদেরই খাবার সঙ্কট দেখা দেবে। সে কারণে দোকানের মালামাল বিক্রি করে ঝুঁকিতে পড়তে চান না।

এশিয়া টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, উহানের এক কোটি ১০ লাখ মানুষের মধ্যে গো জিংহো একজন। যেখানকার সবাই অনেকটাই বন্দি জীবন পার করছে। কোয়ারেনটাইনের ফলে বর্তমানে অনাহারে মারা যাওয়ার মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

পান হংশেং নামে এক ব্যক্তি বলেন, আমি জানি না যে ঘরে থাকা এই খাবারটুকু শেষ হলে স্ত্রী সন্তানদের জন্য কোন জায়গা থেকে খাবার পাবো।

তবে বর্তমানে সেখানে অনলাইনে অর্ডার দিয়ে খাবার নিচ্ছেন অনেকেই। এজন্য চড়া মূল্য পরিশোধ করতে হচ্ছে। জানা গেছে, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে বিভিন্ন পেজে অর্ডার নিয়ে স্বল্প পরিমাণে খাবার সরবরাহ করা হচ্ছে। সেটাও করা হচ্ছে নিকটবর্তী স্থানগুলোতে অর্থাৎ এলাকাভিত্তিক।

পান হংশেং বলেন, নিজের দেশে এখন নিজেকে শরণার্থী মনে হচ্ছে। কবে নাগাদ এই অবস্থা থেকে মুক্তি মিলবে, সে ব্যাপারে কোনো ধারণা নেই তার।

Check Also

ফের কি দেশজুড়ে হতে চলেছে কড়া লকডাউন? জানুন ভাইরাল খবরের আসল সত্যতা!

দীর্ঘ পাঁচ মাস যাবত লকডাউন এর পর আবার কি একইরকম লকডাউন এর পথে হাঁটতে চলেছে ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *