Breaking News
Home / LIFESTYLE / রান্নার গ্যাস দুর্ঘটনা থেকে বাঁচতে এই সতর্কতা অবলম্বন করুন

রান্নার গ্যাস দুর্ঘটনা থেকে বাঁচতে এই সতর্কতা অবলম্বন করুন

রান্নার গ্যাস সিলিন্ডার ব্লাস্ট করে দুর্ঘটনার খবর প্রায়ই পাওয়া যায়। অনেক সময় গ্যাস বিস্ফোরণ হয়ে মৃত্যু অবধি ঘটে। আসলে এলপিজি গ্যাস আমাদের যতটাই সুবিধা করেছে ঠিক ততটাই বিপজ্জনক বলা যায়। একটু অসাবধান হলেই অমনি খাঁড়া ঝুলছে। যেহেতু আজকের দিনে বেশির ভাগ গৃহস্থের বাড়িতে কিচেন রুমের গ্যাস এবং সিলিন্ডার বসানো থাকে সে ক্ষেত্রে বিস্ফোরণ হলে তা কোনও ভাবেই বড়সড় বিপদ এড়ানো সম্ভব হয় না। তাই বাড়ি সাজানো গোছানো করার পাশাপাশি রান্নার গ্যাস ব্যবহারের ক্ষেত্রে আগাম সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত। তা না হলে আমাদের প্রিয়জনকে হারাতে হয়। তাই অবশ্যই রান্না শেষ হয়ে যাওয়ার পর গ্যাসের নবটি ঠিকঠাক বন্ধ করে রাখা উচিত। একই সঙ্গে মাঝে মাঝে গ্যাসের পাইপটি চেক করতে হবে। তবে এই দুর্ঘটনা বা বিস্ফোরণ এড়ানোর জন্য কী কী সতর্কতা নিতে হবে তা জেনে নিন-

1. গ্যাস জানানোর পর কখনোই লাইটার বা গ্যাস দেশলাই সিলিন্ডারের উপরে রাখবেন না এতে গ্যাস সিলিন্ডার গরম হয়ে গিয়ে বিপদ ঘটতে পারে। একই সঙ্গে গ্যাসের ওভেন সিলিন্ডার ও গ্যাস পাইপ নিরাপদ স্থানে রাখার চেষ্টা করুন।

2. গ্যাসের পাইপটি কখনোই ওভেনের ওয়ার্নারের দিকে রাখবেন না এতে গরম হয়ে পাইপ গলে গিয়ে বিস্ফোরণ ঘটতে পারে।

3. অন্তত এক বছর পর পর গ্যাসের পাইপ চেক করুন আর দুই তিন বছর পর তা বদলে ফেলুন।

4. কখনওই পাইপের গায়ে প্লাস্টিক বা কাপড়ের কোনও জিনিস জড়িয়ে রাখবেন না এতে গ্যাসের পাইপ যদি লিক হয়ে যায় তাহলে তা ধরা পড়বে না এবং বড়সড় বিপদ এড়ানো যাবে না।

5. গ্যাসের পাইপ পরিষ্কারের সময় সাবান জল নয় বরং শুকনো কাপড় ব্যবহার করুন এতে কোনও রকম সমস্যা হয় না।

6. গ্যাসের পাইপ বা সিলিন্ডার কেনার সময় অবশ্যই আইএসআই চিহ্ন দেখে কিনুন আর যদি সেই চিহ্ন না থাকে তাহলে তা ফেরত দিয়ে দিন।

7. কিচেন রুমে যদি গ্যাসের কোনও গন্ধ পান তা হলে কোনও বৈদ্যুতিন সুইচ চালু করবেন না।

8. ঠান্ডা হয়ে গেলে মুক সর্বদা সেফটি ক্যাব বন্ধ করে দেবেন এতে সহজেই বিপদ এড়ানো সম্ভব।

9. যদি কোনো সময় বুঝতে পারেন গ্যাস লিক হয়েছে অথচ আসছে না মেঝেতে ঘোরা ফেরা করছে তখন হাত পাখা দিয়ে তা বাইরে বার করে দিন আর যদি না পারেন সেক্ষেত্রে গ্যাসের সংস্থাকে খবর দেবেন।

আসলে বর্তমানে যেভাবে প্রায় সেই গ্যাস দুর্ঘটনার খবর পাওয়া যাচ্ছে তাতে আগাম সতর্কতার অভাবে কিন্তু বড়সড় বিপদ ঘটে যেতে পারে তাই নিজেকে এবং নিজের পরিবারকে সুস্থ ও ভাল রাখার জন্য গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহারের সময় এই সতর্কতা গুলি মানা আবশ্যক।

পোস্ট কৃতজ্ঞতা – পশ্চিমবঙ্গ ২৪/৭

Check Also

জেনে নিন সন্তানের উচ্চতা বাড়ানোর ৬ কৌশল

সব মা-বাবাই চান তাদের সন্তান হৃষ্টপুষ্ট থাকুক, হোক লম্বা আর শক্তিশালী। কারণ এসবই সুস্বাস্থ্যের লক্ষণ। ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *