Breaking News
Home / HEALTH / জানেন কি? সিগারেটের থেকেও ডিম বেশি ক্ষতিকর! বলছেন বিজ্ঞানীরা

জানেন কি? সিগারেটের থেকেও ডিম বেশি ক্ষতিকর! বলছেন বিজ্ঞানীরা

সকালে ব্রেকফাস্ট থেকে দুপুরে লাঞ্চ কিংবা রাতে ডিনার পাতে যদি এক পিস ডিম না থাকে তা যেন মন পসন্দ হয় না। অত্যন্ত প্রাণিজ পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ একটি ভাল খাবারের তালিকায় রয়েছে এই ডিম। তাদের যেমন অত্যন্ত সুস্বাদু, তেমনই পুষ্টিগুণ। তাই তো এই ডিমের চাহিদাও কিন্তু ব্যাপক। বাড়ির বাচ্চারা যেমন মাছ মাংস থেকে ডিম টাই বেশি পছন্দ করেন ঠিক তেমনই বাড়ির বড়রাও সেই পছন্দের তালিকা থেকে বাদ যান না। শুধু ডিম সিদ্ধ নয় ডিমের বিভিন্ন রেসিপিও করে খাওয়া হয়। আর এ ভাবেই এক দিনেই অনেক সময় দু তিনটি করে ডিম খাওয়া হয়ে যায়। তবে যাঁরা আবার ডায়েট করছেন তাদের তো ডিম মাস্ট। এক কথায় লোভনীয় খাবার তাই লোক ছাড়া যায় না।

আমরা অনেকেই মুড়িমুড়কির মতো এই ডিম খাই কিন্তু বিজ্ঞানীরা সেই ডিম খাওয়া নিয়ে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ্যে এনেছেন। দুই একবার স্ট্রেস বা মানসিক চাপ বা কাজের চাপে একটা করে সিগারেট খেলেই আরও মনে হয় শরীরের অনেক ক্ষতি হয়ে গেল কিন্তু বিজ্ঞানীরা বলছেন অন্য কথা। সিগারেটের থেকেও নাকি ডিম খাওয়া উত্তম তো ক্ষতিকর। হয়তো পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ এবং স্বাস্থ্যকর কিন্তু তা সত্ত্বেও ডিম যে কতটা ক্ষতিকারক তার জন্য দীর্ঘদিন ধরে গবেষণা চালিয়েছেন নিউ ইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন গবেষক।

আর গবেষণা চালিয়ে একটি তথ্য প্রকাশ্যে এনেছেন যেখান থেকে জানা গিয়েছে ডিমে কোলেস্টেরলের মাত্রা এতটাই বেশি যা হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়। এমনিতে কোলেস্টেরল সমৃদ্ধ বেশি খাবার খেতে আমাদের নিষেধ করেন চিকিত্সকরা কিন্তু ডিমে এই কোলেস্টেরল ঘাপটি মেরে লুকিয়ে রয়েছে আরও বেশি বেশি করে। শুধু এখানেই শেষ নয় অতিরিক্ত ডিম খেলে নাকি আর্থারাইটিসের সমস্যা দেখা দেয়। অর্থাত্ পায়ের গাঁটে গাঁটে ব্যথা পা ফুলে যাওয়া এ সব কিন্তু হতে পারে অতিরিক্ত ডিম খাওয়ার ফলে এমনটাই বলছেন বিজ্ঞানীরা।

তবে এর পাশাপাশি ডিমের কুসুম ও ডিমের সাদা অংশ খাওয়া নিয়ে যে বিতর্ক রয়েছে সেই সম্পর্কেও এক চাঞ্চল্যকর দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা। তাঁদের মতে গোটা টিমটাই স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক। তবে কাঁচা ডিম তুলনামূলকভাবে কম ক্ষতিকারক বলেই দাবি করেছেন বিজ্ঞানীরা। যদিও খাওয়া যায় না কিন্তু প্রাণ বাঁচাতে আর ডিমের লোভ সামলাতে না পারলে একবার ট্রাই করতেই পারেন।

Check Also

চাল ধোওয়া পানি অথবা ভাতের মাড় কখনো ফেলবেন না, কারণ তা অবিশ্বাস্য কাজের!

একবার ভাত হয়ে গেলে, ফ্যান বা মাড়টা কি কখনও রেখে দিয়েছেন? সুতির জামা-কাপড়ে মাড় দেওয়ার ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *