Breaking News
Home / NEWS / অ্যাডমিট কার্ড না আসায় মাধ্যমিকে বসতে পারল না ছাত্রী।

অ্যাডমিট কার্ড না আসায় মাধ্যমিকে বসতে পারল না ছাত্রী।

মেলেনি পরীক্ষায় বসার জন্য অ্যাডমিট কার্ড। ফলে এবছর মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসার অনুমতি মিলল না এক ছাত্রীর। ঘটনাটি ঘটেছে পুরুলিয়ার রঘুনাথপুরের স্থানীয় সাঁতুড়ির বালিতোড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে। ওই বিদ্যালয় থেকে এবার মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসার কথা ছিল শুভদ্রা বাউরি নামের ওই ছাত্রীর। কিন্তু স্কুল কর্তৃপক্ষের গড়িমসির জন্য সময়ের মধ্যে হাতে অ্যাডমিট কার্ড না পাওয়ায় কার্যত এই বছর সে পরীক্ষায় বসতে পারছে না। এদিকে এমন ঘটনায় স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ তুলে কান্নায় ভেঙে পড়ে ওই ছাত্রী।

জানা গিয়েছে, শুভদ্রা নামের ওই ছাত্রীর এবার মাধ্যমিক পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল। সেইমত সমস্ত রকম প্রস্তুতিও সেরে ফেলেছিল সে। কিন্তু তার পরীক্ষার পথে বাধ সাধে অ্যাডমিট কার্ড। কারণ, সেটি দেখাতে না পারলে মিলবে না পরীক্ষায় বসার ছাড়পত্র। ফলে সারাবছরের পরিশ্রম কার্যত জলে যাওয়ার যোগাড় তার।

শুধু তাই নয়, সম্প্রতি বালিতোড়া পঞ্চায়েত থেকে হওয়া বিশেষ মক টেস্ট পরীক্ষাতেও বসেছিল সে। ওই পরীক্ষায় শুভদ্রা যথেষ্ট ভালোই ফল করেছিল। গত ১১ ফেব্রুয়ারি ওই ছাত্রী স্কুলে অ্যাডমিট আনতে যায়। কিন্তু, স্কুল কর্তৃপক্ষ জানায়, তার নামে কোনও অ্যাডমিট কার্ড আসেনি। এই বিষয়ে শুভদ্রার বাবা আস্তিক বাউরি বলেন, ”মেয়ে হঠাৎ এসে বলে, তার অ্যাডমিট কার্ড আসেনি। তাই পরীক্ষা দিতে পারবে না। বিষয়টি নিয়ে বিদ্যালয়ে গেলে প্রধান শিক্ষক জানান, শুভদ্রা ফর্ম ফিলআপ করেনি। তাই অ্যাডমিট আসেনি। মেয়ে পরীক্ষা দেওয়ার কথা জানলেও বিদ্যালয়ের তরফে সেই সময় ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। মেয়ে পরীক্ষা দিতে না পারার জন্য ভেঙে পড়েছে।”

এই বিষয়ে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ”ছাত্রীটি দীর্ঘদিন স্কুলে আসত না। অ্যাডমিটের ফর্ম ফিলআপ করার জন্য নির্দিষ্ট দিন দেওয়া হয়েছিল। শুভদ্রা সেই সময় আসেনি ও ফর্ম ফিলআপ করেনি। তাই ওর অ্যাডমিট আসেনি। কয়েক দিন আগে এসে বিদ্যালয়ে পরীক্ষা দেওয়ার কথা জানায়। কিন্তু, তখন আর কিছু করার ছিল না।”

বিষয়টি নিয়ে বিদ্যালয় পরিদর্শক অভিষেক সাহা বলেন, ”সোমবার হঠাৎ ছাত্রীটির বিষয়ে জানতে পারি। সঙ্গে সঙ্গে জেলা শিক্ষা দফতরে জানানো হয়। কিন্তু, জেলা থেকে জানানো হয়, ১৫ফেব্রুয়ারির মধ্যে বিষয়টি জানালেও ওই ছাত্রীর পরীক্ষায় বসার ব্যবস্থা করা যেত। স্কুল কর্তৃপক্ষ কেন এমন কাজ করেছে, তা জানতে চাওয়া হবে। এনিয়ে ব্যবস্থাও নেওয়া হবে।”

Check Also

ক/রো/না/র সেকেন্ড ওয়েভে ভরসা সূর্যালোক! কেন এমনটা বলছেন বিশেষজ্ঞরা?

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ সামাল দিতে যখন হিমশিম খাচ্ছে দেশ তখনই গবেষকদের হাতে উঠে এল চাঞ্চল্যকর ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *