Breaking News
Home / LIFESTYLE / শিশুদের জন্যও করাতে হবে আধার কার্ড, জেনে নিন আবেদন পদ্ধতি

শিশুদের জন্যও করাতে হবে আধার কার্ড, জেনে নিন আবেদন পদ্ধতি

আধার নম্বর প্রত্যেক ভারতীয়র কাছে এখন বেশ গুরুত্বপূর্ণ নথি হয়ে দাঁড়িয়েছে। সামাজিক প্রকল্পের সুবিধা পেতে এই আধার নম্বর আবশ্যিক। আর বড়দের জন্য তো রয়েছে আধার কার্ড, তবে ছোটদের জন্য একটু আলাদাভাবে আধার নিয়ে চিন্তা করলো কেন্দ্র। ছোটদের জন্য নতুন রঙের আধার কার্ড আনতে চলেছে ইউআইডিএআই। ইউআইডিএআইয়ের তরফ থেকে বুধবার ট্যুইট করে ঘোষণা করা হয়েছে, নীল রঙের ‘বাল আধার’ কার্ডের বিষয়ে।

কেবল মাত্র পাঁচ বছর পর্যন্ত শিশুদের জন্য এই বিশেষ নীল রংয়ের ‘বাল আধার’। যদিও আগেও পাঁচ বছর অব্দি শিশুদের আধার হত। তবে এবার এই আধার পাওয়া যাবে নীল রঙের। শিশুর বয়স ৫ বছর পর্যন্ত এই বাল আধারের বৈধতা থাকবে। কিন্তু তারপর তা অবৈধ হয়ে যাবে। শিশুর এই আধার কার্ড সক্রিয় করার জন্য বায়োমেট্রিক বাধ্যতামূলক বলে জানানো হয়েছে ইউআইডিএআইয়ের তরফ থেকে।

কিন্তু হঠাৎ করে এই বাল আধারের পরিকল্পনা কেন সরকারের? সে বিষয়ে সরকারি ওয়েবসাইটে জানানো হয়েছে, বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পে শিশুদের সুযোগ করে দেওয়ার জন্যই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। শিশুদের অভিভাবকেরা সরকারের কল্যাণমূলক বিভিন্ন প্রকল্পের সুবিধা পেতে পারেন এই সকল নীল রঙের ‘বাল আধার’ কার্ড বা নম্বরের পরিপ্রেক্ষিতে। এর আগে শিশুদের যেসকল আধার কার্ড তৈরি হতো তাতে তাদের বায়োমেট্রিক নেওয়া হত না।

কীভাবে এই আধার কার্ড পাবেন?
শিশুদের জন্য ‘বাল আধার’ পাওয়ার জন্য অভিভাবকদের নিকটবর্তী এনরোলমেন্ট সেন্টার অথবা যে সমস্ত ব্যাঙ্ক বা পোস্ট অফিসে আধার হচ্ছে সেখানে যোগাযোগ করতে হবে। এছাড়াও অনলাইনেও অ্যাপয়েন্টমেন্ট নেওয়া যেতে পারে।

আধার এনরোলমেন্ট সেন্টার অথবা আধার কেন্দ্রগুলি থেকে দেওয়া নির্দিষ্ট তারিখে ওই শিশুকে নিয়ে যেতে হবে।

তারপর রেজিস্ট্রেশন ফর্ম পূরণ করতে হবে। দিতে হবে শিশুর জন্ম বিবরণ ও জন্মের শংসাপত্র।

পাশাপাশি বাবা-মায়ের আধারের প্রতিলিপি ও দিতে হবে। আধার ফর্মে দিতে হবে শিশুর ছবি।

এরপর শিশুর আধার হয়ে গেলে সেই আধারের লিঙ্ক পাঠিয়ে দেওয়া হবে নির্দিষ্ট ইমেইল আইডিতে। ই-আধার হিসাবে তৎক্ষণাৎ ডাউনলোড করে নিতে পারেন শিশুর অভিভাবকরা।

Check Also

বৃষ্টি বা ব’জ্রপাতের সময় কই মাছ কেন মাটিতে উ’ঠে আসে জা’নেন?

figure> আমাদের দেশেও বর্ষাকালে একটা ব্যাপার লক্ষ্য করা যায়। আষাঢ়-শ্রাবণে দিকে যখন প্রচন্ড বৃষ্টি হয়, ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *