Home / LIFESTYLE / নতুন ধামাকা পলিসি নিয়ে হাজির LIC, এবার মেয়ের বিয়েতে পাবেন 27 লাখ টাকা..

নতুন ধামাকা পলিসি নিয়ে হাজির LIC, এবার মেয়ের বিয়েতে পাবেন 27 লাখ টাকা..

দেশের সাধারণ মানুষের কথা মাথায় রেখে এর আগেও একাধিক নতুন নতুন পলিসি এনেছে এলআইসি। আর এবারও সেইসব সাধারণ মানুষের সুবিধার কথা মাথায় রেখেই প্রতিবারের ন্যায় এবারও এক নতুন পলিসি নিয়ে হাজির LIC। এমন অনেক পরিবারই রয়েছে যারা তাদের মেয়ের বিয়ে কে নিয়ে চিন্তায় থাকেন তবে এবার এলআইসি যে নতুন পলিসিটি আনলো তার দরুন এবার মেয়ের বিয়ে দিলেই মেয়ের বাবা পেয়ে যাবেন 27 লাখ টাকা।

এক্ষেত্রে দিনপ্রতি কিছু টাকা দিয়ে এই বিশেষ পলিসিটির সুবিধা উপভোগ করতে পারেন আপনিও। আসলে সন্তান জন্মানোর পর থেকেই তাদের জন্য টাকা সঞ্চয় করতে শুরু করে দেন তার পিতা-মাতা। আবার সেই ক্ষেত্রে যদি কন্যা সন্তান হয় তাহলে তার বিয়ের খরচার জন্য ও গয়নার জন্য টাকা জমানোর প্রবণতা তো আজও রয়েছে। আর এই কথা মাথায় রেখেই কন্যা সন্তানদের দরুন এই নতুন পলিসি নিয়ে হাজির হয়েছে এলআইসি।

চলুন তাহলে আর দেরি না করে দেখে নেওয়া যাক কী এমন পলিসি আনছে LIC যার দরুন আপনি মেয়ের বিয়ে দিলে পেয়ে যাবেন 27 লাখ টাকা। এই পলিসিটি- র জন্য আপনাকে প্রতিদিন 121 টাকা করে দিতে হবে তাহলে 25 বছর পর সেই ব্যক্তিকে এলআইসি তরফ থেকে দেওয়া হবে 27 লক্ষ টাকা। এলআইসির তরফ থেকে এই নতুন প্ল্যানের নাম দেওয়া হয়েছে “কন্যাদান যোজনা”। আর এই পরিমাণ টাকা দিয়ে আপনি আপনার মেয়ের বিয়ের ধুমধাম করে করে নিতে পারবেন।

তবে এই পলিসির জন্য কিছু নিয়মাবলী রয়েছে যার মধ্যে প্রথমটি হলো এই পলিসিকারীর ন্যূনতম বয়স হতে হবে 30 বছর আর সেক্ষেত্রে মেয়ের বয়স হতে হবে এক বছর।আর এই ক্ষেত্রে যে প্ল্যানটি রয়েছে সেটি হচ্ছে 25 বছরের জন্য কিন্তু এক্ষেত্রে আপনাকে প্রিমিয়াম দিতে হবে 22 বছরের। এক্ষেত্রে বলে রাখি যদি কোনো কারণবশত পলিসিকারকের মৃত্যু হয়ে যায় তাহলে তার পরিবারের প্রিমিয়ামে ছাড় দিতে হবে।

তবে শুধু তাই নয় এক্ষেত্রে পলিসিকারীর মৃত্যু হয়ে গেলে তার পরিবারকে বছর প্রতি 1 লক্ষ টাকা দেবে ওই সংস্থা। আর এক্ষেত্রে মূল বিষয় হলো এতে ওই পলিসির ওপর কোনো প্রভাব পড়বে না। এই পলিসিটির ম্যাচিওরিটি হয়ে যাওয়ার পরই 27 লাখ টাকায় পাবে সে পলিসিকারীর পরিবার। তাই এসব সুবিধার কথা মাথায় রেখে এলআইসি তরফ থেকে নতুন নিয়ম আনতে চলেছে। আমাদের দেশে এটা প্রায়ই লক্ষ্য করা যায় এমন অনেক মানুষ রয়েছেন যারা মেয়েদের বিয়ের বয়সের বিয়ে দিতে পারেন না।

তাই তখন তাদের অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় কিছু ক্ষেত্রে আবার মেয়েদের বাবারা ধার-দেনা করেও মেয়ের বিয়ে দিয়ে থাকেন, আবার অনেক ক্ষেত্রে এটাও করতে পারেন না অনেক জন। তবে এখন এলআইসির তরফ থেকে এখন যে “কন্যাদান যোজনা” টি নিয়ে আসা হচ্ছে তার দরুন দেশের কোনো বাবাদেরই এরকম কোনো সমস্যায় পড়তে হবে না।

Check Also

সোশ্যাল প্লাটফর্মে বেশি আকৃষ্ট সন্তান? ইউটিউব খুঁজে দেবে বাচ্চাদের উপযোগী ভিডিও

আপনার বাচ্চা কী বেশি সোশ্যাল সাইটের প্রতি আকৃষ্ট? অনলাইন গেম, ভিডিও, কার্টুন, কবিতা ছাড়া কী ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *