Breaking News
Home / LIFESTYLE / অতিরিক্ত গরমে ঘরে টিকতে পারছেন না? দেখে নিন এসি ছাড়াই ঘর ঠান্ডা রাখার সেরা উপায়

অতিরিক্ত গরমে ঘরে টিকতে পারছেন না? দেখে নিন এসি ছাড়াই ঘর ঠান্ডা রাখার সেরা উপায়

চলছে ভরপুর গ্রীষ্ম। সূর্যের প্রখর তাপে মানুষ ও প্রাণীরা হয়ে উঠেছে অতিষ্ঠ। এই জ্বালাময় পরিস্থিতি থেকে মুক্তি পেতে বেশিরভাগেরই সঙ্গী হয়ে উঠেছে এসি অথবা এয়ার কুলার। কিন্তু, অনেকেই বাড়িতেই এসি বা কুলার নেই, শুধুমাত্র ফ্যানের হাওয়ায় স্বস্তি পাওয়া মুশকিল হয়ে উঠছে। তাই, আজ আমরা আপনাদেরকে এমন কিছু ঘরোয়া পদ্ধতির কথা বলব যা বাড়ির অন্দরমহলের পরিবেশকে একদম ঠান্ডা করতে সহায়তা করবে। জেনে নিন সেই পদ্ধতিগুলি –

১) ন্যাচারাল ভেন্টিলেশন আপনার বাড়ির যে অংশটি দিয়ে সবচেয়ে বেশি বাতাস চলাচল হয়, আপনি সেই পাশের উইন্ডোগুলি খোলা রাখতে পারেন, তাহলে সূর্যাস্তের পরে আপনার ঘর বাতাসে পরিপূর্ণ হবে।

২) জানালা খোলা রাখুন দিনের বেলা নয়, সূর্যাস্তের পরে। গ্রীষ্মকালে দিনের বেলা গরম বাতাস বয় তাই, চেষ্টা করবেন দুপুরের সূর্যের প্রখর তাপ ঘরে না আসতে দিতে। তবে সূর্যাস্তের পরে যখন তাপমাত্রা কিছুটা কমে যায় এবং ঠান্ডা হাওয়া দেওয়া শুরু করে তখন জানালা-দরজা খুলে দিন, যাতে বাতাস ঘরের ভিতরে প্রবেশ করতে পারে। ঠান্ডা বাতাসে ঘরের গুমোট হাওয়া তাড়ান।

৩) সাদা রঙের চাদর গ্রীষ্মে আপনার বাড়ি শীতল রাখতে চাইলে এই পদ্ধতিটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। সাদা বা হালকা রংয়ের সুতির কাপড় বিছানার চাদর হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। বিছানার চাদর মোটা হলে ঘাম বেশি হয়। সাদা ও হালকা রঙের উপাদান তাপ শোষণ করে না, বরং প্রতিফলিত করে। পেঁয়াজ কাটতে গিয়ে কেঁদেকেটে একশা? চোখের জল আটকাতে অনুসরণ করুন এই পদ্ধতিগুলি

৪) ঘরের চারপাশে গাছপালা লাগান বাড়ি ঠান্ডা রাখার জন্য ঘরের চারপাশে গাছপালা লাগাতে পারেন। ছায়া দিতে পারে এমন গাছ পূর্ব-পশ্চিম অনুযায়ী লাগান, আপনার বাড়িতে সরাসরি সূর্যের তাপ ঢুকতে বাধা পাবে। ঘরের চারপাশে ঘাসজাতীয় গাছ থাকলে ঘর ঠান্ডা থাকে।

৫) হোয়াইট ছাদ গ্রীষ্মে প্রাকৃতিকভাবে ঘরকে শীতল রাখার অন্যতম সেরা প্রক্রিয়া এটি। সাদা রঙ তাপ শোষণ করে না, বরং প্রতিফলিত করে। তাই, হোয়াইট রঙ সূর্যের UV রশ্মিকে প্রতিফলিত করবে এবং আপনার বাড়িকে প্রাকৃতিকভাবে শীতল রাখবে। সুতরাং, আপনার বাড়ির ছাদ এবং টেরেস অঞ্চলগুলি সাদা রঙ করে নিতে পারেন।

৬) ঘরেই এয়ার কন্ডিশনার তৈরি করুন এক বাটি আইস কিউব বা বরফ নিয়ে তা ফ্যানের সামনে বা নীচে রাখুন, তারপর ফ্যান চালান। কিছুক্ষণ পর যখন বরফগুলো গলতে শুরু করবে, তখন বাতাস ওই ঠান্ডা জল শোষণ করবে এবং চারিদিকে ছড়িয়ে দেবে। ফলে, বরফের জন্য ফ্যানের হাওয়া ঠান্ডা হবে এবং সারা ঘরে ঠান্ডা বাতাস ছড়াবে।

৭) খসখস টাঙাতে পারেন জানলায় গরমকালে পর্দার বদলে বাঙালির অতি পরিচিত খসখস টাঙাতে পারেন জানলায়। এতে বাইরের তাপ সবচেয়ে ভাল আটকানো যায়। আগে খসখস জলে ভিজিয়ে দেওয়া হত। কিন্তু তা না করলেও চলবে।

Check Also

IPL সহ একবছর সমস্ত ক্রিকেট ম্যাচ বিনামূল্যে দেখতে Jio এর তরফে নিয়ে আসা হল দুর্দান্ত প্ল্যান

ভারতের সবচেয়ে বড় প্রিমিয়ার লিগ আইপিএল 2020 শুরু হচ্ছে আগামী 19 শে সেপ্টেম্বর থেকে। এই ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *