Breaking News
Home / LIFESTYLE / সুশান্তর ৫০টি স্বপ্ন যেগুলি পূরণ হলো না…

সুশান্তর ৫০টি স্বপ্ন যেগুলি পূরণ হলো না…

আজ থেকে মাত্র ৯ মাস আগের কথা। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করেছিলেন তিনি, লিখেছিলেন তার জীবনের ৫০ টি স্বপ্নের তালিকা। তার জীবনে যে স্বপ্নগুলি পূরণ করতে চান, সেগুলোই লিখে দিয়েছিলেন সেখানে। লাইক, কমেন্টে ভরে যায় সেই পোস্ট। অথচ আজ, ৯ মাস পড়ে একইভাবে রয়ে গেল সেই স্বপ্নের তালিকা, চিরঘুমে চলে গেলেন স্বপ্নের মালিক।

এত স্বপ্ন দেখতে ভালোবাসা একজন মানুষ নিজের হাতেই শেষ করে দিল নিজেকে! স্বপ্ন দেখা দুটি চোখ বন্ধ হয়ে যায় চিরদিনের জন্য। সেই স্বপ্নের তালিকা এখন ঘুরে বেড়াচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। আফসোস একটাই, এত স্বপ্ন বুকে নিয়েই নিজেকে পৃথিবী থেকে সরিয়ে নিলেন সুশান্ত।

সুশান্ত এর মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ ভারতের দর্শক থেকে রাজনৈতিক মহল, খেলোয়াড় থেকে তরুণ প্রজন্ম। ভক্তদের কাছে এ যেন ছিল একটা দুঃস্বপ্ন। কে ভাবতে পেরেছিল এত স্বপ্ন বুকে নিয়ে মাত্র ৩৪ বছর বয়সে নিজেকে শেষ করে দেবেন তিনি।মাত্র ৩৪ বছর বয়সে সাফল্যের শিখরে পৌঁছে গিয়েছিলেন তিনি, হয়ে উঠেছিলেন তরুণ প্রজন্মের হার্ট থ্রব।সে ই আজকে নেই।

সুশান্ত সিং রাজপুতের স্বপ্নের তালিকা
প্লেন ওরাতে চাইতেন তিনি, আইরন ম্যান ট্রিল্যাথনের জন্য প্রশিক্ষণ নিতে চেয়েছিলেন, বাঁ-হাতে ক্রিকেট টুর্নামেন্ট খেলতে চাইতেন, গোটা ইওরোপ ঘুরতে চাইতেন ট্রেনে চেপে, নাসার ওয়ার্কশপে পাঠাতে চাইতেন ১০০ জন পড়ুয়াকে। অ্যাস্ট্রোনট হতে চাইতেন তিনি, নিজের টেলিস্কোপ দিয়ে তারা দেখতেন।

নারী স্বনির্ভরতার কাজ করতে চাইতেন তিনি, প্রশিক্ষন দিতে চাইতেন সেলফ ডিফেন্সের। নাচ এবং মার্শাল আর্টস শেখাতে চাইতেন ছোটদের।মার্শাল আর্টের ডিগ্রিও আছে তার সাথে ওয়েস্টার্ন ডান্সের ট্রেনিংও নিয়েছিলেন তিনি এবং সেগুলো দিয়েই ট্রেনিং দিতে চাইতেন ছোটদের।

খুব ভালো দাবাও খেলতে চাইতেন তিনি, স্বপ্ন ছিল একদিন কোনো বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের সাথে দাবা খেলবেন। নিজের একটি ল্যাম্বর্গিনি গাড়ি কিনতে চাইতেন। ফটো তুলতে ভালোবাসতেন তিনি, ইচ্ছে ছিল একদিন কোনো জ্বলন্ত অগ্নেয়োগিরির ফোটো তুলবেন।

বিখ্যাত খেলোয়াড়ের সঙ্গে পোকার খেলা, বই লেখা, নাসা-র ওয়ার্কশপে অংশ নেওয়া, ছ’মাসে সিক্স প্যাক অ্যাবস বানানো, জলের নীচ দিয়ে বয়ে যাওয়া প্রাকৃতিক ভাবে সৃষ্ট নদীতে সাঁতার কাটা, এক সপ্তাহ জঙ্গলে কাটানো, বৈদিক যুগের জ্যোতিষশাস্ত্র শেখা এবং ডিজনিল্যান্ডে বেড়াতে যাওয়ারও ইচ্ছে ছিল সুশান্তের।

এর পাশাপাশি একটি ঘোড়া পোষার ইচ্ছে ছিল সুশান্তের। সকলে যাতে বিনামূল্যে শিক্ষার সুযোগ পান, তার ব্যবস্থা করতে আগ্রহী ছিলেন তিনি। ১০ রকম ঘরানার নাচ শিখতে চেয়েছিলেন। শক্তিশালী টেলিস্কোপ দিয়ে ছায়াপথে চোখ রাখা, মহিলাদের আত্মরক্ষার প্রশিক্ষণ দেওয়া, আন্টার্কটিকা বেড়াতে যাওয়া এবং সক্রিয় আগ্নেয়গিরির ছবি তোলারও স্বপ্ন ছিল তাঁর।

বাচ্চাদের নাচ শেখানো, পলিনেশিয়ান জ্যোতির্বিদ্যা শেখা, নিজের প্রিয় ৫০টি গান গিটারে তোলা, ল্যাম্বরগিনি গাড়ি কেনা এবং চাষবাসও শিখতে চেয়েছিলেন সুশান্ত।দু’হাতে সমান বল প্রয়োগ করে তিরন্দাজি শেখারও ইচ্ছা ছিল তাঁর। তা করেও দেখান তিনি।

এ ছাড়াও, ভিয়েনার সেন্ট স্টিফেনস ক্যাথিড্রালে যাওয়া, সেনাবাহিনীর জন্য পড়ুয়াদের প্রস্তুত করা, ট্রেনে চেপে ইউরোপ ভ্রমণ, সার্ফিং-সহ আরও অনেক কিছু করতে চেয়েছিলেন সুশান্ত, যার মধ্যে বেশির ভাগই অসম্পূর্ণ থেকে গেল।

তার স্বপ্নের তালিকা থেকেই বোঝা যায় কত বিষয় দক্ষতা ছিল তার। খুব ভালো মনের মানুষ ছিলেন তিনি। কিন্তু এই স্বপ্নের তালিকা পড়ার পর যখন মনে পড়ে যে এই স্বপ্নগুলো যিনি একটু একটু করে দেখেছিলেন তিনিই আজ এই পৃথিবীর কোথাও নেই, তখন বিষন্নতা আসে।এত স্বপ্ন দেখা মানুষটি নিজের মনে অবসাদের শিকার হয়ে ছিলেন! এই প্রশ্নই ঘুরে ফিরে আসছে সকলের মনে। তবে উত্তর রহস্যই থেকে গেছে।

Check Also

ভাত রান্না ছাড়াও আরও ৮ ভাবে চালকে ব্যবহার করতে পারেন, যা আপনি কখনই জা’নতেন না!

চাল দিয়ে নানা পদের রান্না কে না জা’নেন৷ কিন্তু হেঁশেলের বাইরেও চাল ব্যবহার করা যায় ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *