Breaking News
Home / VIRAL / অপারেশনের মাঝে রোগী বাজালেন বেহালা! (ভিডিও)

অপারেশনের মাঝে রোগী বাজালেন বেহালা! (ভিডিও)

মাথার টিউমার সরানোর অপারেশন চলছিল রোগীর। এর মাঝপথে ডেকে চিকিৎসকরা বেহালা তুলে দিলেন রোগীর হাতে। সেই বেহালায় সুরও তুললেন তিনি। এই সুরের মাঝে অপারেশনের বাকি কাজটি সফলভাবে সারলেন ডাক্তাররা।

লন্ডনের কিংস কলেজ হাসপাতালে ডাগমার টার্নার নামের এক নারী গিটারিস্টের ব্রেন সার্জারির সময় এই দৃশ্যের অবতারণা হয়। যদিও অপারেশনের আগেই পুরো প্রক্রিয়াটি অবহিত করা হয়েছিল রোগী টার্নারকে।

আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থায় ব্রেন টিউমারের অপারেশনে রোগীকে শতভাগ অচেতন করার দরকার পড়ে না। রোগীর জ্ঞান থাকলে চিকিৎসকদের বরং সুবিধা হয়। রোগীর স্নায়ু ঠিকমতো কাজ করছে কি না, তা সহজে বুঝতে পারেন সার্জনরা। তাই এই ধরনের অপারেশনের সময় রোগীর সঙ্গে কথোপকথন চালিয়ে যান চিকিৎসকরা।

অপারেশনের পর চিকিৎসকরা বলেছেন, বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি মেনেই তারা এ কাজ করেছেন। বেহালা বাজানোর সময় টার্নারের মস্তিষ্কের যে অংশগুলো সক্রিয় ছিল সেগুলো যেন কোনোভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, তা নিশ্চিত করতেই এই কাজটি করেছেন তারা।

৫৩ বছর বয়সী ডাগমারের মাথায় যেখানে টিউমার ধরা পড়ে গিটার বাজানোর জন্য সেই অঞ্চলটি গুরুত্বপূর্ণ। তাই অপারেশনের পূর্বে টার্নারের গোটা মস্তিষ্কের ম্যাপিং করে নেন চিকিৎসকরা। বেহালা বাজানোর জন্য প্রয়োজনীয় অংশগুলোর ম্যাপিংও করে রাখেন। তাদের লক্ষ্য ছিল, এই অংশগুলোতে যেন কোন প্রকাশ আঘাত না লাগে।

টার্নারের নিউরোসার্জন অধ্যাপক কিয়োউমার্স আশকান বলেন, আমরা জানতাম বেহালা বাজানো তার জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ। কাজেই এটা বাজাতে তার মস্তিষ্কের যে অংশগুলো ব্যবহৃত হয়, সেগুলো অক্ষত রাখাটা ছিল অপরিহার্য।

অস্ত্রোপচারের তিন দিন পর বাড়ি ফেরেন ডাগমার টার্নার। অপারেশন টেবিলের গোটা টিমের প্রশংসায় পঞ্চমুখ তিনি। বলেন, ‘আর কোনোদিন বাজাতে পারব কি না, সেটি ভাবতেই কান্না পাচ্ছিল। গিটার হাতে নিতে না পারার থেকে মরে যাওয়া ভালো। বেহালা আমার জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ!’

টার্নার আরও বলেন, অপারেশনের সময় যে আমাকে জাগিয়ে তোলা হবে এবং বেহালা বাজাতে হবে— এটি ছিল চমকপ্রদ একটি আইডিয়া। তারা যে যত্ন নিয়ে বেহালার প্রতি আমার ভালোবাসাকে গুরুত্ব দিয়ে অপারেশনটি করেছেন, তাতে আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।

নিউরোসার্জন কিউমার্স আশকান জানিয়েছেন, প্রতিবছর ৪০০ রোগীর ব্রেন টিউমার অপসারণ করেন। অপারেশনের সময় কথা বলার পাশাপাশি, বিভিন্ন ধরনের কৌশল অবলম্বন করে থাকেন তারা। কিন্তু এই প্রথম তারা কোনো রোগীকে দিয়ে গিটার বাজিয়েছেন।

দেখুন সেই ভিডিওটি-

এর আগে ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে বেহালাবাদক রজার ফ্রিস্ক ‘এ্যাসেন্সিয়াল ট্রিমরে’র অপারেশনের সময় ডাক্তারদের পরামর্শে বেহালা বাজিয়েছিলেন। এতে করে তার অপারেশনও সফল হয়েছিল।

Check Also

এক’ফোটা দুধ পেতে মৃ’ত মায়ের পা’শে অবুঝ শিশুর আর্তনাদ

মাকে ডাকছে অবুঝ শিশু। কিন্তু সন্তানের ডাকে সাড়া নেই মায়ের। মা যখন সাড়া দিচ্ছে না ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *